বিনোদন মানুষকে কি ভুলিয়ে রাখে?


বিনোদন মানুষের জীবনের অমূল্য সময় চুরি করে নিয়ে যায় মানুষের অজান্তেই। মানুষ যেন স্বেচ্ছায় নিজেকে ক্ষয় করার বা নিঃশেষ করার ব্রত নিয়ে বিনোদনের জালে ধরা দেয়। আসুন আমরা ভেবে দেখি বিনোদন আমাদের কি কি ভুলিয়ে রাখে:

১। মানুষের ক্ষুদ্রতা ও অসহায়ত্ব: বিনোদনের মাধ্যমে মানুষকে তার ক্ষুদ্রতা ও অসহায়ত্ব ভুলিয়ে রাখা হয়।

Read More »

Advertisements

সন্তান ছেলে বা মেয়ে হওয়ার জন্য কে দায়ী? স্বামী না স্ত্রী?


আল্লাহ তায়ালা যাকে ইচ্ছা পুত্র সন্তান দান করেন, যাকে ইচ্ছা দেন কন্যা সন্তান আর যাকে ইচ্ছা কিছুই দেননা। আর এটাই আল্লাহ তায়ালার ইচ্ছা।
আল্লাহ তায়ালা বলেন:
لِلَّهِ مُلْكُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ يَخْلُقُ مَا يَشَاءُ يَهَبُ لِمَنْ يَشَاءُ إِنَاثًا وَيَهَبُ لِمَنْ يَشَاءُ الذُّكُورَ (49) أَوْ يُزَوِّجُهُمْ ذُكْرَانًا وَإِنَاثًا وَيَجْعَلُ مَنْ يَشَاءُ عَقِيمًا إِنَّهُ عَلِيمٌ قَدِيرٌ (50)
অর্থাৎ, যমীন ও আসমানের বাদশাহীর অধিকর্তা আল্লাহ তিনি যা ইচ্ছা সৃষ্টি করেন। যাকে ইচ্ছা কন্যা সন্তান দেন,আর যাকে ইচ্ছা পুত্র সন্তান দান করেন,যাকে ইচ্ছা পুত্র ও কন্যা উভয়টিই দেন এবং যাকে ইচ্ছা বন্ধ্যা করে দেন। তিনি সব কিছু জানেন এবং সবকিছু করতে সক্ষম। (সুরা শুরা:৪৯-৫০)
আমাদের সমাজে একটা ব্যাধি চরম আকার ধারণ করেছে। তা হল কারো যদি বার বার মেয়ে হয় ছেলে না হয়; এমতাবস্থায় পূনরায় মেয়ে হলে অনেক ক্ষেত্রে সন্তানের মাতাকে তালাক পর্যন্ত দিয়ে দেয় মানুষ নামের কলংক ব্যক্তিরা। আল্লাহ তায়ালা এ ধরণের মানসিকতা সম্পন্ন ব্যক্তিদের সম্বন্ধে বলেছেন:
وَإِذَا بُشِّرَ أَحَدُهُمْ بِالْأُنْثَى ظَلَّ وَجْهُهُ مُسْوَدًّا وَهُوَ كَظِيمٌ (58) يَتَوَارَى مِنَ الْقَوْمِ مِنْ سُوءِ مَا بُشِّرَ بِهِ أَيُمْسِكُهُ عَلَى هُونٍ أَمْ يَدُسُّهُ فِي التُّرَابِ أَلَا سَاءَ مَا يَحْكُمُونَ (59)
অর্থাৎ, আর যখন এদের কাউকে কন্যা সন্তান জন্মের সুখবর দেয়া হয় তখন তার চেহারা কালো হয়ে যায় এবং সে ভিতরে ভিতরে গুমরে মরতে থাকে। লোকদের থেকে লুকিয়ে থাকতে চায়, কারণ এ দুঃসংবাদের পর সে লোকদের মুখ দেখাবে কেমন করে? ভাবতে থাকে,অপমান মেনে নিয়ে মেয়েকে রেখে দেবে, নাকি তাকে মাটিতে পুঁতে ফেলবে?তাদের সিদ্ধান্ত কতই না নিকৃষ্ট। (সুরা নাহল: ৫৮-৫৯)
এটা ছিল তৎকালীন জাহেলী তথা মুর্খ সমাজের আচরণ। আর আমরা নিজেদেরকে এখন সভ্য জাতি হিসেবে দাবি করেও একই রকম কাজ করি। তাহলে, আমাদের এবং জাহেলী যুগের মানুষদের ভিতরে কি পার্থক্য থাকল? অনেক সময় সন্তান প্রসবের আগেই গর্ভবতী মহিলাকে হুমকি দেয়া হয় যে, এবার ছেলে না হলে তাকে তালাক দেয়া হবে। কি আশ্চর্য!! এটা কি তার ইচ্ছামত নাকি? যে, যা ইচ্ছা তাকেই পছন্দ করবে? এ ক্ষেত্রে তাদের ভাবটা এমন দেখা যায় যে, মেয়ে হওয়ায় স্বামীর যেন কোন দোষই নেই যত দোষ সব স্ত্রীর। আসলে কি তাই? স্ত্রী কি সন্তান মেয়ে হওয়ার জন্য দায়ী? স্বামীর কোন দোষ কিংবা প্রভাব নেই এতে? আসুন বিজ্ঞানের আলোকে একটু বিশ্লেষণ করে জেনে নিই।
আমরা জানি প্রত্যেকটি মানুষের শরীরে ৪৬ টি ক্রোমোজম থাকে। সেগুলো দুই প্রকারের। বিজ্ঞানের পরিভাষায় এগুলোকে x ও y নামে অভিহিত করা হয়। নারীর দেহে থাকে ৪৬ টি x ক্রোমোজম। আর পুরুষের শরীরে থাকে ২৩ টি x ও ২৩ টি y, যখন কোন পুরুষ ও মহিলার দৈহিক মিলন ঘটে তখন স্বামীর থেকে ২৩ টি x এবং স্ত্রীর থেকে ২৩ টি x এসে যে সন্তান হয় তা হয় মেয়ে। আর যদি নারীর থেকে ২৩ টি x ও স্বামীর থেকে ২৩ টি y আসে তাহলে, সন্তান হয় ছেলে।
তাহলে, আমরা দেখতে পায় যে, এটা পুরোপুরি স্বামীর অবস্থার উপর নির্ভর করবে। দায়ী যদি কাউকে করতেই হয় তাহলে বলতে হবে এর জন্য দায়ী স্বামী; স্ত্রী নয়। কেননা, স্বামীর শরীর থেকে x আসার কারণেই মেয়ে হয়েছে। আর যদি y আসত তাহলে সন্তান ছেলে হত। এ জন্যই টেস্ট টিউব সন্তানের বেলায় ডাক্তাররা কখনো কখনো বীর্য থেকে x ও y ক্রোমোজম আলাদা করে সন্তান ছেলে বা মেয়ে হওয়াতে প্রভাব সৃষ্টি করেন। (তবে, এটাতে স্বামীরও কোন হাত নেই, অতএব, সেও দায়ী নয়)
আমাদের দেশে বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে বাড়ীর মহিলারা তাদের ছেলেকে প্ররোচনা দিয়ে থাকেন যে, এবার মেয়ে হলে তোমার বউকে তালাক দিয়ে দাও। এমন ছন্নছাড়াকে বাড়ীতে আর রেখ না। ইত্যাদি আরও কত কি! আগন্তুক কন্যা সন্তান দুনিয়ায় এসে কখনো জানতে পারেন তার দাদি কিংবা নিকটাত্মীয়দের এসব কথা তাহলে- তার মনে কি প্রতিক্রিয়া হতে পারে? এরপরেও কি তার মনে ঐ ব্যক্তিদের প্রতি কোন ভক্তি শ্রদ্ধা অবশিষ্ট থাকতে পারে? যে মহিলারা এ কথা বলে থাকেন তাদেরও জানা উচিত যে, সে নিজেও মহিলা। সে নিজে মহিলা হওয়া সত্ত্বেও আরেকজন মেয়ের আগমণে তার এ ধরণের কথাবার্তা মানায় না।
রাসুল (সাঃ) কন্যা সন্তানকে জান্নাতে যাওয়ার জন্য পাথেয় বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন:
قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ كُنَّ لَهُ ثَلَاثُ بَنَاتٍ أَوْ ثَلَاثُ أَخَوَاتٍ أَوْ بِنْتَانِ أَوْ أُخْتَانِ اتَّقَى اللَّهَ فِيهِنَّ وَأَحْسَنَ إِلَيْهِنَّ حَتَّى يَبِنَّ أَوْ يَمُتْنَ كُنَّ لَهُ حِجَابًا مِنْ النَّارِ
অর্থাৎ, রাসুল (সাঃ) বলেছেন: যার তিনটি কন্যা কিংবা বোন অথবা দুই কন্যা বা বোন থাকে এবং সে তাদের সম্বন্ধে আল্লাহ তায়ালাকে ভয় করে (তাদের অধিকার সম্বন্ধে সচেতন হয়) এবং তাদের মৃত্যু কিংবা স্বয়ংসম্পূর্ণ বা সৎপাত্রস্থ হওয়া পর্যন্ত তাদের সাথে সৎব্যবহার করে, তাহলে, তারা তার জন্য জাহান্নামে যাওয়ার পথে অন্তরায় হবে। (মুসনাদে আহমাদ)
অন্যত্র রাসুল (সাঃ) বলেছেন:
« مَنْ عَالَ جَارِيَتَيْنِ حَتَّى تَبْلُغَا جَاءَ يَوْمَ الْقِيَامَةِ أَنَا وَهُوَ ». وَضَمَّ أَصَابِعَهُ.
অর্থাৎ, যে দুইজন মেয়েকে বয়ঃপ্রাপ্ত হওয়া পর্যন্ত লালন পালন করবে, আমি এবং সে কিয়ামতের দিন এভাবে পাশাপাশি থাকব। এই বলে রাসুল (সাঃ) তার হাতের আংগুলগুলোকে একত্রিত করলেন। (মুসলিম শরীফ)
তাহলে, আমাদের যদি নিজেকে মুসলিম বলে দাবি করতে হয়, তাহলে আল্লাহ তায়ালার সিদ্ধান্তের উপরেই রাজি হওয়া উচিত। আর, মেয়ে হওয়ার জন্য শুধুমাত্র মেয়ের মাকে দোষ দেয়া নিতান্তই জুলুম ও মুর্খতা প্রসুত কাজ। কারণ, দোষের কিছু করে থাকলে করেছে স্বামী স্ত্রী নয়।
আমরা সমাজের কুসংস্কার দূর করতে চাই।

খাদ্য নিয়ে নতুন তথ্য


খাবারের প্লেটে পুষ্টিকর কি কি, কয় ভাগ থাকবে, তা নতুন করে নির্ধারিত হলো। খাবারের প্লেটকে ভাগ করা হলো চারটি অংশে, দুধজাত দ্রব্যের একটি সাইড ডিশ সঙ্গে। আমেরিকার ফুড গাইডলাইন যা স্থির হয়ে ছিলো ১৯ বছর পর এর পরিবর্তন ঘটলো। বদলে গেলো ডায়েট আইকন। প্লেটের অর্ধেক দুভাগে, এক অংশ ফল, অন্য অংশ শাক সবজি। বাকি অর্ধেক ভাগের এক অংশ শস্যজাত খাদ্য, অপর ছোট অংশ আমিষ। একটি সাইড ডিশে দুধজাত দ্রব্য। নতুন ডায়েট আইকনে, খাবার প্লেটের চারটি ভাগে লাল অংশে ফল, সবুজ অংশে সবজি, কমলার অংশে শস্য, বেগুনী অংশে আমিষ ও সাইড ডিস নীল অংশে দুধজাত দ্রব্য। অতি সম্প্রতি আমেরিকার কৃষি সচিব এই নতুন আইকনটি উম্মোচন করেছেন।

Read More »

রাগ ফুসফুসের জন্য ক্ষতিকর


আপনি কি বদমেজাজী? সামান্য কোন ঘটনাতেই চট করে রেগে যান? কিছুতেই নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না? ব্যক্তিত্বের এই বৈশিষ্ট্য যেমন আপনার সামাজিক সম্পর্কের জন্য নেতিবাচক, তেমনি শরীরের জন্যও অপকারী। কিছুটা অদ্ভুত শোনালেও গবেষকরা বলছেন, বেশী রাগ, উত্তেজনা ফুসফুসের জন্য ক্ষতিকর। হার্ভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথের বিজ্ঞানীরা বদমেজাজী লোকদের উপর আট বছরব্যাপী গবেষণা চালিয়ে দেখতে পান, যারা স্বভাবগতভাবে বেশী রাগী ও উত্তেজিত, তাদের ফুসফুসের কার্যক্ষমতা কম রাগীদের তুলনায় বেশী হ্রাস পেয়েছে। ব্রিটিশ লাং ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডাঃ জন মুরে গিলন বলেছেন, যখন কোন ব্যক্তি রেগে যায়, তখন শরীরের ভেতর কিছু হরমোন নিঃসৃত হয়। Read More »

খেলা হয় ফেসবুকে


পাঁচ-দশ টাকা জোগাড় হলেই দৌড় ভিডিও গেমসের দোকানে। মুস্তফা খেলেই কাটিয়ে দেয় সারা দিন। কিংবা বন্ধুর নতুন গেম-সিডি পাওয়ার জন্য তার হাতপায়ে ধরা। জন্মদিনে একটা গেমসের সিডি পাওয়া মানেই অর্ধেক রাজত্ব হাতে পেয়ে যাওয়া। সেই দিন বদলে গেছে। এখন খেলা মাঠেঘাটে নয়, খেলা হয় ফেসবুকে।র্মভিলের মাঠে ফসল বুনতে গিয়ে দেখা পেতে পারেন আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের। কিংবা আপনার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাই হয়তো বলে বসবেন, তুমি আমার নেইবার রিকোয়েস্ট নিচ্ছ না যে!
Read More »

আমেরিকায় ফোবানা সম্মেলন শুরু


যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির ক্রিস্টাল গেটওয়ে মেরিয়ট হোটেলে শুরু হচ্ছে ফোবানা সম্মেলনের রজত জয়ন্তী উৎসব ২০১১।  শুক্রবার শুরু হচ্ছে এ উৎসব। আমেরিকান বাংলাদেশী বিজনেস এসোসিয়েশন আয়োজিত এ সমম্মেলনের আমন্ত্রিত অতিথিরা বৃহস্পতিবারই ওয়াশিংটন পেঁৗছেছেন। এর মধ্যে রয়েছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ, শিক্ষাবিদ ড. মুহাম্মদ সামাদ ও সাংবাদিক শফিক রেহমান।
Read More »

আসছে টানা চারদিনের হরতাল


তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল ও ৫১টি সংশোধনীসহ বিরোধী দলের আপত্তির মুখে সংবিধান সংশোধন করায় মধ্য জুলাইয়ে টানা তিন দিনের হরতাল কর্মসূচি দিবে বিএনপি, শরিক ও সমমনা দলগুলো। এর আগে শনিবার রাতে শরিক ও সমমনা দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সমমনা দলের একজন নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে  জানান, শনিবার রাতে গুলশানের কার্যালয়ে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে চারদলের শরিক জামায়াতে ইসলামী, Read More »

পুলিশী হামলায় জনতার আন্দোলন থামবে না: আনু মুহাম্মদ


পুলিশী হামলা আর আক্রমণ করে জনগণের আন্দোলন থামানো যাবেনা বলে মন্তব্য করেছেন, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। শুক্রবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে কনোকোফিলিপস’র হাতে সমুদ্রের গ্যাস ব্লক তুলে দেয়ার লুণ্ঠন ও পাচারমুখী চুক্তি বাতিলের দাবিতে জাতীয় কমিটির ৩ জুলাইর হরতালের সমর্থনে এক সমাবেশে তিনি একথা বলেন।Read More »

বৃষ্টির অজুহাতে চালের দামে ঊর্ধ্বগতি, ঝাঁজ বাড়ছে পেঁয়াজেরও


ক’দিন ধরে বৈরী আবহাওয়ার অজুহাতে আবারো বাড়ছে চালের দাম। পাশাপাশি বেড়েছে ভোজ্যতেল, চিনি, পেয়াজ, রসুনসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের দাম। ছোলাসহ রমজানের প্রয়োজনীয় পণ্যের দামে ঊর্ধ্বগতি এক মাস আগেই। গত সপ্তাহের তুলনায় প্রতি কেজি চালে বেড়েছে এক থেকে দেড় টাকা। চিনিতে ২-৩ টাকা, পেয়াজে ২-৩ টাকা, সবজিতে ৭-৮ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। মাছের দামও বেশ চড়া। প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ১২১ টাকায়।
Read More »

কাক চেনে মানুষের আসল চেহারা


অনেক ছোট একটি পাখিরও কিন্তু অনেক ধরণের ক্ষমতা থাকে৷ অথচ আমরা কখনোই তা স্বীকার করি না বা দেখতে চাই না৷ অন্যদিকে, প্রাণীরা কিন্তু শুভ এবং অশুভ – উভয় প্রভাবের ঈঙ্গিত অনেক আগে থেকেই বুঝতে পারে৷ সেদিক থেকে কাক রয়েছে শীর্ষে৷ সিয়াটল বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কিছু বিজ্ঞানী কাকের আচার-আচারণ নিয়ে গবেষণা করছেন বছরের পর বছর ধরে৷ তাঁরা জানান, অশুভ কোন কিছু দেখলেই কাকগুলো অস্থির হয়ে পড়ে৷ ডানা জাপটাতে থাকে, কর্কশ গলায় চিৎকার শুরু করে৷
Read More »