Mao+1 murtiচীনে মাও জে-দংয়ের ৩৭টি মিটার উঁচু সোনায় মোড়ানো মূর্তিটি তৈরির কয়েক দিনের মধ্যে তা ভেঙে ফেলা হয়েছে। সরকারি অনুমোদন না থাকার কারণে এটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে বলে মূর্তি স্থাপনের উদ্যোক্তা গ্রামবাসীর উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা পিপলস ডেইলি।
পিপলস ডেইলিকে উদ্ধৃত করে বিবিসি এই খবরটি জানানোর পাশাপাশি বলেছে, মূর্তিটি ভেঙে ফেলার কিছু ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসেছে।
টুইটারে আসা বিভিন্ন ছবিতে দেখা যায়,মূর্তির পা ভেঙে ফেলা হয়েছে, মাথাটি কালো কাপড়ে ঢাকা। তবে ছবিগুলোর সত্যতা যাচাই সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে বিবিসি।
মধ্য চীনের হেনান প্রদেশের থুংশু কাউন্টির এক ক্ষেতের মধ্যে কমিউনিস্ট চীনের প্রতিষ্ঠাতার মূর্তিটি বসানো হয়েছিল।
এ মূর্তি বসাতে প্রায় ৩০ লাখ ইউয়ান বা চার লাখ ৬০ হাজার ডলারের ব্যয়ের বেশিরভাগটাই জোগান দিয়েছিলেন স্থানীয় এক ব্যবসায়ী। তার সঙ্গে গ্রামবাসীও অর্থ দিয়েছিল।
থুংশু কাউন্টির একজন ভূমি কর্মকর্তা মূর্তিটি সরিয়ে ফেলার খবর নিশ্চিত করে পিপলস ডেইলিকে বলেছেন, কী কারণে তা করা হয়েছে, তা তিনি জানেন না।
যেখানে মূর্তিটি স্থাপিত হয়েছিল, সেই ঝুশিগ্যাংয়ের গ্রাম প্রধান বলেছেন, এটির নিবন্ধন নেওয়া হয়নি, অনুমোদনও নেওয়া হয়নি, তাই সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত হয়।
মূর্তিটি এভাবেই তৈরি হয়েছিল মূর্তিটি এভাবেই তৈরি হয়েছিল
চেয়ারম্যান মাওয়ের এই মূর্তি স্থাপন সময় ও অর্থের অপচয় বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সমালোচনা উঠেছিল।
মূর্তিটি যে প্রদেশে বসানো হয়েছিল, ১৯৫০ এর দশকে দুর্ভিক্ষের শিকার হয়ে সেখানে লাখ লাখ মানুষ মারা যান। মাওয়ের নীতির কারণে এই দুর্ভিক্ষ দেখা দিয়েছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।
দুর্ভিক্ষে এতগুলো মৃত্যুর জন্য মাওকে দায়ী করা হলেও কমিউনিস্টদের কাছে এখনও তিনি সম্মানিত। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংও ‘বড় ব্যক্তিত্ব’ হিসেবে তার প্রশংসা করেছেন।
চীনের প্রেসিডেন্ট পদে ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত করার প্রচেষ্টায় নিজের পক্ষে সমর্থন তৈরিতে মাওকে পূর্বসূরি মানলেও সাবেক এই নেতা ‘ভুল করেছেন’ বলেও মন্তব্য এসেছে বর্তমান প্রেসিডেন্ট শির কাছ থেকে।