05-টি২০ ফরম্যাটে বাংলাদেশ এখনো গোছানো দলে পরিণত হতে পারেনি। অথচ মাশরাফি বাহিনীর সামনে রয়েছে টি২০ ফরম্যাটের বড় দুটি টুর্নামেন্ট। তাই এই ফরম্যাটের এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপের আগে সেরা একটা কম্বিনেশন দাঁড় করানোর খোঁজে রয়েছেন বলে গত বুধবার জানিয়েছিলেন জাতীয় দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।
যদিও গত বছর ওয়ানডে ক্রিকেটে টাইগারদের দুর্দান্ত কেটেছে। সেই ধারাবাহিকতায় গত বছরের নভেম্বরে জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করলেও দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজটি শেষ হয়েছিল (১-১) সমতায়। তাই এবার সেরা কম্বিনেশন খোঁজার পাশাপাশি জয়েই মূল ফোকাস থাকবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।
চার ম্যাচের টি২০ সিরিজের প্রথমটি শুক্রবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়মে শুরু হবে। বৃহস্পতিবার ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে আসেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি। জিম্বাবুয়ে দলকে সমীহ করলেও জয়ের কোনো বিকল্প ভাবছেন না বাংলাদেশ দলপতি।
প্রথম দুটি টি-টোয়েন্টি দলের স্কোয়াডের বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘দলে কম্বিনেশনটা একটু অালাদা এবার। আমাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার কিছু সুযোগ আছে। কিন্ত আমাদের লক্ষ্যটা অবশ্যই জয়। এটা একটা আন্তর্জাতিক ম্যাচ। তাই জয়ের বিকল্প অন্য কিছু ভাববার সুযোগ নেই।’
এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘যে কোন খেলায় জয়টাই প্রাধান্য পাবে সবার আগে। এর সঙ্গে এই ফরম্যাটে অনেক কিছু আছে আমাদের দেখারও। তাই দলের কিছু জায়গা আমারা চেষ্টা করছি কম্বিনেশনটা ঠিক রেখে কিছু করার। তারপরও প্রথম প্রাধান্য থাকবে অবশ্যই জয়ে।’
ওয়ানডে ফরম্যাটে বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বের সেরা দলের বিপক্ষে জয় পেয়েছে। সেই অনুপাতে টি২০ ক্রিকেটে এখনো বড় দলগুলোর বিপক্ষে জয়ের দেখা পায়নি মাশরাফি বাহিনী। তাই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি২০ সিরিজটি এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপের আগে সেরা কম্বিনেশন খুজে বের করার এক সিরিজ। কারণ এই সিরিজে সেরা কম্বিনেশন দাঁড় করাতে পারলে মার্চে অনুষ্ঠেয় ভারতে টি২০ বিশ্বকাপে অবশ্যই ভালো করবে বলে মনে করছেন মাশরাফি।
এ বিষয়ে স্বাগতিক অধিনায়ক বলেন, ‘এই সিরিজে আমরা কম্বিনেশনতো একটা তৈরি করবোই। হয়তোবা এর রেজাল্ট পেতে পারি আবার নাও পারি। তবে আমাদের কাছে মনে হয়েছে এখনোই সময় এটা করে দেখার।’
বিপিএলের তৃতীয় আসরে চোট নিয়ে খেলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে চ্যাম্পিয়ন হতে দারুণ ভূমিকা রেখেছিলেন মাশরাফি। এমনকি ওই আসরে জাতীয় দলের অনেক ক্রিকেটার ইনজুরি নিয়েও খেলেছিলেন। যদিও দলের মধ্যে এখনো ছোট-খাটো কিছু ইনজুরি সমস্যা থাকলেও বাংলাদেশ দলের খেলা থাকলে সবাই যেন কেমন একটু অন্যরকমও হয়ে যান।
এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘বিপিএলে খেলার সময় মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত ছিলাম। তবে জাতীয় দলের ড্রেসিংরুমে সেটা থাকে না। ছোট-খাটো চোট আছে। এগুলো নিয়ে এর আগেও অনেক খেলেছি। তবে আমি ইনশাল্লাহ আশা করছি সবকিছুই ঠিকই থাকবে।’
বাংলাদেশ দলের সামনে রয়েছে টি২০ ফরম্যাটের বড় দুটি টুর্নামেন্ট। তাই এখন টি২০ এর দিকেই বেশি দৃষ্টি  টাইগারদের। তবে এই যুক্তি মানতে নারাজ মাশরাফি, ‘জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টি২০ তাছাড়াও একটা টেস্ট ম্যাচ খেলার কথা ছিল।কিন্তু হয়নি। তবে টেস্ট ম্যাচের বিকল্প আসলে কিছু নেই। সেটা আমি বলবোও না। তবে সেই সঙ্গে টি২০ ম্যাচের গুরুত্ব শুধু বাংলাদেশেই হচ্ছে না। টি২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে তো অনেক দেশই এটাকে প্রাধান্য দিচ্ছে।’
খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ১৫ জানুয়ারী প্রথম টি২০ ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ দল। সিরিজের বাকি তিন টি২০ ম্যাচ যথাক্রমে একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে ১৭, ২০ ও ২২ জানুয়ারি। ২৩ জানুয়ারী ঢাকা ত্যাগ করবে জিম্বাবুয়ে দল। তবে ম্যাচ কখন থেকে শুরু হবে তা এখনও নির্ধারণ করেনি বিসিবি।