barca_naymarমুনির আল হাদ্দাদি ও নেইমারের অসাধারণ পারফরম্যান্সে অ্যাতলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেল বার্সেলোনা। কোপা দেল রে’র কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগের এ খেলায় জিতে সেমিফাইনালের জন্য এক পাঁ এগিয়ে গেল লুইস এনরিকের শিষ্যরা। খেলার শেষ দিকে অবশ্য বিলবাওয়ের হয়ে একটি গোল শোধ করেন আরিতিজ আদুরিজ।
বুধবার রাতে আথলেতিকের মাঠ সান মামেসে কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে মুনির এল হাদ্দাদির গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর প্রথমার্ধেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। ম্যাচের শেষের দিকে ব্যবধান কমান আরিৎজ আদুরিস।
চোটের কারণে দলে ছিলেন না লিওনেল মেসি, নিষেধাজ্ঞার জন্য সুয়ারেস; বার্সেলোনার আক্রমণের মূল দায়িত্ব ছিল তাই নেইমারের কাঁধে। দায়িত্বটা ভালোমতোই পালন করেন ব্রাজিল অধিনায়ক।
ম্যাচের শুরুতে আথলেতিক সমানে সমান খেলতে থাকলেও ধীরে ধীরে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বার্সেলোনা। পঞ্চদশ মিনিটে নেইমারের উচিয়ে মারা শট লাফিয়ে ফিস্ট করে কর্নারের বিনিমযে ঠেকান গোলরক্ষক।
অষ্টাদশ মিনিটে বার্সেলোনাকে এগিয়ে দেন মেসির জায়গায় সুযোগ পাওয়া মুনির। ডান দিক থেকে রাকিতিচের দারুণ ক্রসে পা বাড়িয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করে তরুণ এই ফরোয়ার্ড।
২৪তম মিনিটে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের ভুলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। লাপোর্তের ভুলে বল চলে যায় তার কাছে। গোলরক্ষক এররেরিন এগিয়ে এসেও বল বিপদমুক্ত করতে না পারায় গোলপোস্ট হয়ে পরে অরক্ষিত। ফাঁকা জালে কেবল বলটা পাঠাতে হয় নেইমারকে।দুই দলের খেলোয়াড়রাই ফাউল করে চলায় দ্বিতীয়ার্ধের খেলার সৌন্দর্য নষ্ট হয়। পুরো ম্যাচে দুই দলের নয় জন খেলোয়াড়কে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি।
ম্যাচের ৮৯তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতর থেকে গোল করে স্বাগতিক শিবিরে খানিকটা আশা জাগান ফর্মে থাকা ফরোয়ার্ড আদুরিস।
যোগ করা সময়ে সমতায় ফেরার সহজ সুযোগ নষ্ট করে আথলেতিক। সাবিনের শট কোনোমতে ফিস্ট করে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান বার্সেলোনার গোলরক্ষক টের স্টেগেন।
গত রোববার রাতেই লা লিগার ম্যাচে কাম্প নউয়ে আথলেতিককে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল বার্সেলোনা। নিজেদের মাঠে এর প্রতিশোধ নিতে পারল না আথলেতিকো।