টালিগঞ্জে দেবের দশক পার


dev-bengali-actorমুম্বাই সিনে পাড়ায় শুটিং-এ খাবার সরবরাহকারী বাবাকে সাহায্য করতেন শিশু দীপক অধীকার। এক সময় বাবার সেই ক্যাটারিং সার্ভিসের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন মনের আনন্দেই। আর তার ফলেই সুযোগ হয়েছিল বলিউডের কিং ‍খান শাহরুখের পাতে খাবার তুলে দেয়ার। সেই দীপক আজ টালিগঞ্জের মহাতারকা দেব। ক্যারিয়ারের এক দশক পার করে ফেলেছেন এই নায়ক।
মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে জানালেন সে কথা, “আমার অভিযাত্রা দশ বছর জারি থাকায় ধন্যবাদ সবাইকে।”
দেবের জন্ম পশ্চিমবঙ্গে, পরিবারের সঙ্গে শৈশব, কৈশোর পার করেছেন মুম্বাইয়ে। আউটডোর শুটিংয়ে ক্যাটারিং সেবা প্রদান করতেন তার বাবা।
দেব প্রথম অভিনয় করেন ‘অগ্নিশপথ’ সিনেমায়। প্রবীর নন্দী পরিচালিত সিনেমাটি মুক্তি পায় ২০০৬ সালে। দেবের বিপরীতে অভিনয় করেন রচনা ব্যানার্জি। সিনেমাটি তেমন সাড়া জাগাতে পারেন। তবে অভিষেকের সিনেমাতেই জাত চেনাতে পেরেছিলেন। পরবর্তী বছরগুলোতে একের পর এক সফল সিনেমা ‍উপহার দিয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গের তরুণদের কাছে স্টাইল আইকন হয়ে উঠেছেন।
২০০৮ সালের ‘মন মানে না’ দেবের ক্যারিয়ারের একটি মাইলফলক। প্রথম সুপারহিট সিনেমার টাইটেল গানটি এখনও জনপ্রিয়। একই বছর ‘চ্যালেঞ্জ’ সিনেমাটিও সুপারহিট। ‘ভজো গৌরাঙ্গ’, ‘চ্যালেঞ্জ নিবি না’ গান দুটি ঐ বছরের সেরা দুটি হিট গান। এই সিনেমার মাধ্যমেই টানা সাত সিনেমার জুটি শুরু করেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে। ২০১৩ সালে জুটি ভাঙার আগ পর্যন্ত তারা অভিনয় করেন, ‘পরাণ যায় জ্বলিয়া রে’, ‘রোমিও’, ‘খোকাবাবু’, ‘খোকা ৪২০’ সিনেমাগুলোতে।
২০১০ সালের জুনে ‘বলো না তুমি আমার’ সিনেমার গান ‘লে পাগুল ডান্স’ দীর্ঘ সময় মাতিয়ে রেখেছিল, ‘আয়না মন ভাঙা আয়না’ গানটিও যথেষ্ট জনপ্রিয়। এর পরের বছরই মুক্তি পায় ‘পাগলু’ এবং এর সিকুয়াল মুক্তি পায় তার ঠিক পরের বছর।
২০১০ সালের ডিসেম্বরে মুক্তি পায় ‘সেদিন দেখা হয়েছিল’, সিনেমার ‘খোকাবাবু যায় লাল জুতো পায়’ গানটির জনপ্রিয়তার তুমুলে পৌছায়। এর ঠিক দুবছর পর মুক্তি পায় ‘খোকাবাবু’, এবং পরবর্তীতে ‘খোকা ৪২০’।
ক্যারিয়ারের উঠতি সময়ে সে সময়ের তুমুল জনপ্রিয় জিৎ-এর সঙ্গে ‘দুই পৃথীবি’ সিনেমায় অভিনয় করেন। আত্মপরিচয়ের টানাপড়েননির্ভর মনস্তাত্বিক এই সিনেমাটি ২০১০ সালেই টালিগঞ্জে দেবকে স্থায়ী আসন করে দেয়।
ক্যারিয়ার শুরু থেকেই তামিল-তেলেগু সিনেমার রিমেইকে অভিনয় করে চলেছেন – এমন সমালোচনার তীর যখন ছোঁড়া হচ্ছে দেবের দিকে, ঠিক সে সময়ই কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের ‘চাঁদের পাহাড়’-এ অভিনয় করলেন। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিখ্যাত উপন্যাস ‘চাঁদের পাহাড়’ গল্প অবলম্বনে নির্মিত। বক্স-অফিস তেমন একটা সাফল্য না পেলেও ভিন্ন ধরনের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হন।২০১৫ সালে এসে অনিন্দ্য রায় চট্টোপাধ্যায়ের ‘বুনো হাঁস’, বিরসা দাশগুপ্তের ‘শুধু তোমারই জন্য’, অপর্ণা সেনের ‘আরশীনগর’ সিনেমাগুলো দেবকে অভিনেতা হিসেবে জায়গা দেয়। সেই সঙ্গে ‘রংবাজ’, ‘বিন্দাস’, ‘যোদ্ধা’, ‘হিরোগিরি’র মতো ধুম ধাড়াক্কা সিনেমাতেও অভিনয় চালিয়ে গেছেন।
সবশেষে নিজেই খুলেছেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান, অভিনয় করছেন নিজের প্রযোজিত সিনেমা ‘ধুমকেতু’ এবং আপাতত থেমে যাওয়া ‘মহাভারত’-এ।
দেবের দশ পূর্তিতে টুইটারেই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অভিনেতা জিৎ, অঙ্কুশ, প্রযোজক মাহেন্দ্র সনি।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s