ssc-exam-2009এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে কাল সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি)। এবার পরীক্ষায় ১৬ লাখ ৫১ হাজার ৫২৩ শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে ৮ লাখ ৪২ হাজার ৯৩৩ ছাত্র ও ৮ লাখ ৮ হাজার ৫৯০ ছাত্রী। প্রথম দিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্র, সহজ বাংলা প্রথম পত্র, বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংস্কৃতি প্রথম পত্রের পরীক্ষা হবে। মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে দাখিলে প্রথম দিন কুরআন মাজিদ ও তাজবীদ এবং কারিগরিতে বাংলা-২ বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর থেকেই প্রথমে বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) পরে সৃজনশীল বা রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সোমবার সকাল ১০টায় তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করবেন।
এর আগে, গতকাল শনিবার শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, এবার ৩ হাজার ১৪৩টি কেন্দ্রে ২৮ হাজার ১১৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দেবে। ৮টি বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে ১৩ লাখ ৪ হাজার ২৭৪ জন, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীন দাখিলে ২ লাখ ৪৮ হাজার ৮৬৫ ও এসএসসি ভোকেশনালে (কারিগরি) ৯৮ হাজার ৩৮৪ শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেবে।
এবার নিয়মিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ লাখ ৭৪ হাজার ৯২৭, অনিয়মিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৭৪ ও বিশেষ (এক থেকে চার বিষয়ে পরীক্ষা দেবে) পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৪৯ হাজার ৪৭ জন।
বিদেশে ৮টি কেন্দ্রের মাধ্যমে পরীক্ষা নেয়া হবে। এসব কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪০৪ জন।
শনিবার সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা নিতে সরকার কঠোরতা অবলম্বন করছে। তাই এবার প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেন মন্ত্রী।
দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসিজনিত প্রতিবন্ধী ও যাদের হাত নেই- এমন প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থী শ্রুতিলেখক নিয়ে পরীক্ষা দিতে পারবেন। অন্যান্য বছরের মতো এবারো প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবেন।
এবারই প্রথম বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন (অটিস্টিক ও ডাউন সিনড্রোম বা সেরিব্রাল পালসি আক্রান্ত) পরীক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট অতিরিক্ত সময় পাবেন। একইসঙ্গে পরীক্ষার কক্ষে তাদের অভিভাবক বা শিক্ষক বা সাহায্যকারী নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়া হয়েছে।
সারাদেশে সাতজন অটিস্টিক ব্যক্তি এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে।
এবার বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি প্রথম পত্র, ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র ছাড়া সকল বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।
৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৮ মার্চ পর্যন্ত এসএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৯ মার্চ সঙ্গীতের ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং ১০ থেকে ১৪ মার্চের মধ্যে বেসিক ট্রেডসহ এসএসসির সব বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়ার কথা বলা হয়েছে।
সময়সূচি অনুযায়ী, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে দাখিলে তত্ত্বীয় শেষ হবে ১০ মার্চ। এক্ষেত্রে ১৫ মার্চ থেকে ১৯ মার্চের মধ্যে সকল ব্যবহারিক পরীক্ষা শেষ করার কথা বলা হয়েছে।