NZ_VS_AUS_BG_127794302ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারের (৩-০) দুঃস্মৃতির পর এবার নিউজিল্যান্ডের মাটিতে লজ্জায় ডুবলো অস্ট্রেলিয়া। দেশের মাটিতে ওয়ানডেতে ভারতকে ৪-১ ব্যবধানে হারানোর সুখস্মৃতি নিয়ে নিউজিল্যান্ডে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তবে সেখানে খুব একটা সুবিধা করতে পারছে না অসি শিবির। উল্টো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের পেয়ে খ্যাপাটে রূপে ফিরেছে স্বাগতিক কিউইরা। এশিয়ার দুই দেশ প্রথমে শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানকে নাস্তানাবুদ করার পর এবার অস্ট্রেলিয়াকেও পাত্তা দিল না নিউজিল্যান্ড। বুধবার অকল্যান্ডে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ১৫৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরে গেছে সফরকারীরা। ৩০৮ রানের টার্গেটে নেমে ২৪.২ ওভারে ১৪৮ রানেই গুটিয়ে যায় অজিদের ইনিংস।
এর মধ্য দিয়ে নিজেদের ওয়ানডে ইতিহাসে সবচেয়ে কম বল খেলে অলআউট হওয়ার নজির গড়লো অস্ট্রেলিয়া দল। আগের রেকর্ডটি ছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে (১৫২ বল)। বার্মিংহামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে (৪ জুন, ১৯৭৭) নিজেদের সর্বনিম্ন স্কোরের (৭০ রান) রেকর্ড গড়েছিল অজিরা।
বুধবার ০৩ ফেব্রুয়ারি অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নামেন স্টিভেন স্মিথরা। মার্টিন গাপটিলের ৯০ ও হেনরি নিকোলসের ফিফটিতে ভর করে ৩০৮ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় ব্ল্যাক ক্যাপসরা।
জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বোল্ট-হেনরিদের বোলিং তোপে মাত্র ৪১ রানের মধ্যেই ছয় উইকেট হারিয়ে বসে বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তখনই নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে কম রানে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা জাগে। তবে ৭৯ রানের জুটিতে দলের মান কিছুটা হলেও রক্ষা করেন ম্যাথু ওয়েড (৩৭) ও জেমস ফকনার (৩৬)।
ওয়েড-ফকনারের বিদায়ে পর ২৪তম ওভারের প্রথম দুই বলে জন হ্যাস্টিংস (৮) ও কেন রিচার্ডসনকে (১৯) আউট করে অজিদের ইনিংসের সমাপ্তি টানেন বাঁহাতি স্পিনার মিচেল সান্টনার।
কিউইদের হয়ে একাই তিনটি করে উইকেট দখল করেন ট্রেন্ট বোল্ট ও ম্যাট হেনরি। নিজের প্রথম ওভারের প্রথম দুই বলেই দুই উইকেট তুলে নেন সান্টনার। একটি করে উইকেট লাভ করেন অ্যাডাম মিলনি ও কোরি অ্যান্ডারসন।
এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ওপেনিং জুটিতে ৭৯ রান তোলেন গাপটিল ও অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। রান আউটের ফাঁদে পড়ে মাত্র ১০ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হওয়া গাপটিল পরে ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতেন। কেন উইলিয়ামসন শুন্য রানে ফেরেন।
চার নম্বরে ব্যাট করতে নামা হেনরি নিকোলস ৬১ রানের চমৎকার ইনিংস খেলেন। নির্ধারিত ওভার শেষে স্বাগতিকদের স্কোর দাঁড়ায় আট উইকেটে ৩০৭ রান। ব্যক্তিগত ৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন সান্টনার। এছাড়া গ্রান্ট এলিয়ট ২১, অ্যান্ডারসন ১০, লুক রনচি ১৬ ও মিলনি ১৪ রান করে আউট হন।
অজিদের হয়ে দু’টি করে উইকেট লাভ করেন জস হ্যাজেলউড, ফকনার ও মিচেল মার্শ। বাকি উইকেটটি নেন হ্যাস্টিংস।
আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দু’দল। সিরিজ হার এড়াতে এ ম্যাচে স্মিথ-ওয়ার্নারদের জয়ের বিকল্প নেই।