mashrafiচতুর্থ বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে জাতিসংঘের শুভেচ্ছাদূত হচ্ছেন সীমিত পরিসরের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এর আগে হাবিবুল বাশার সুমন, মোহাম্মদ আশরাফুল ও সাকিব আল হাসানকে শুভেচ্ছাদূত করে ইউনিসেফ।
তবে এবারই প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) শুভেচ্ছাদূত হতে যাচ্ছেন মাশরাফি। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও এখন থেকে দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনের বিভিন্ন কল্যাণ ও সচেতনতামূলক কাজে অংশগ্রহণ করবেন। নিজের জন্য এটি বড় সম্মান মনে করছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মাশরাফি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে জাতিসংঘ থেকে এ বিষয়ে আমাকে একটি প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল এবং আমি তাতে সম্মতি জানিয়েছি।
এর আগেও শিশুদের সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে অংশ নেন মাশরাফি। গত বছর ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দ্য রেডক্রসের (আইসিআরসি) আয়োজনে শারীরিক প্রতিবন্ধীদের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের শুভেচ্ছাদূত হয়েছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক।
ক্রিকেটারের পাশাপাশি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী আরিফা জামান মৌসুমী, জাদুশিল্পী জুয়েল আইচ ও টেবিল টেনিস খেলোয়াড় জোবেরা রহমান লিনুকে শুভেচ্ছাদূত করে ইউনিসেফ।