mancityচ্যাম্পিয়নস লিগে কখনো শেষ আটে ওঠা হয়নি ম্যানচেস্টার সিটির। তবে বুধবার রাতে ডায়নামো কিয়েভের মাঠে শেষ ষোলোর প্রথম লেগটা ৩-১ গোলে জিতে সেই পথে অনেকটাই এগিয়ে গেছে সিটিজেনরা।
চ্যাম্পিয়নস লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে ৩-১ গোলের দারুণ জয় তুলে নিল ম্যানচেস্টার সিটি। আর এ জয়ের ফলে কোয়ার্টার ফাইনালের পথে এক পাঁ দিয়ে রাখলো ম্যানুয়েলে পেলেগ্রিনির শিষ্যরা।
শেষ আটের টিকিট পেতে আগামী ১৬ মার্চ নিজেদের মাঠে ফিরতি লেগের ম্যাচটি এখন সিটির কাছে অনেকটা আনুষ্ঠানিকতাই মাত্র।
সাম্প্রতিক ফর্মটা একদমই ভালো যাচ্ছিল না ম্যানচেস্টার সিটির। ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে ম্যাচের আগে শেষ তিনটি ম্যাচেই তারা হেরেছিল। বিশেষ করে এফএ কাপে চেলসির বিপক্ষে ছয়জন অনূর্ধ্ব-১৯ বছর বয়সি ফুটবলারকে নামিয়ে ৫-১ গোলের পরাজয়ের পর তোপের মুখে পড়ে যান ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি।
চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য নিয়মিত একাদশের খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দিতেই চেলসির বিপক্ষে অমন তরুণ দল নামিয়েছিলেন সিটি কোচ। বিশ্রাম থেকে ফেরা সার্জিও আগুয়েরো, ইয়াইয়া তোরেরা ইউরোপ সেরার মঞ্চে পেলেগ্রিনিকে দাপুটে জয়ই এনে দিলেন।
ডায়নামো কিয়েভের মাঠে ম্যাচের ১৫ মিনিটেই সিটিকে এগিয়ে দেন আগুয়েরো। কর্নার থেকে আসা বলে বক্সের ভেতর হেড করে আগুয়েরোকে বল দেন তোরে। জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করে অতিথিদের এগিয়ে দেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার (১-০)
বিরতিতে যাওয়ার আগেই স্কোরলাইন ২-০ করে ফেলেন ডেভিড সিলভা। এই গোলেও অবদান ছিল আগুয়েরোর। আর্জেন্টাইন তারকা বক্সের ভেতর উড়ে আসা বল দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বল বাড়ান রাহিম স্টারলিংকে। বাঁদিক থেকে স্টার্লিংয়ের বাড়ানো বল থেকে সহজেই স্বাগতিক গোলরক্ষককে ফাঁকি দেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার সিলভা।
বিরতির পর ৫৮ মিনিটে অবশ্য স্বাগতিকদের হয়ে গোল করে ব্যবধান কমান ভিতালি বুয়ালস্কাই। তবে নির্ধারিত সময়ের একেবারে শেষ মিনিটে তোরের গোলে ৩-১ ব্যবধানের জয় নিশ্চিত হয়ে যায় ম্যানচেস্টার সিটির।