underwearনিজের আন্ডারওয়্যার না ধুয়ে দেওয়ায় অফিস সহকারী দলিত সম্প্রদায়ের এক নারীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন ভারতের তামিলনাড়ুর নিম্ন আদালতের এক বিচারক। তাকে সাত দিনের মধ্যে ওই নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। শুক্রবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
১ ফেব্রুয়ারি ইস্যু করা ওই নোটিশে বলা হয়, ‘সাব-জজের বাসায় তার আন্ডারওয়্যার না ধুয়ে দেওয়া এবং ওই কর্মকর্তা ও তার স্ত্রী এর কারণ জানতে চাইলে জবাবে আপনি ঔদ্ধত্যের সঙ্গে যে জবাব দিয়েছেন ও সেই আন্ডারওয়্যার বাজেভাবে ছুড়ে ফেলেছিলেন, দয়া করে আগামী সাত দিনের মধ্যে এর কারণ ব্যাখ্যা করুন।’ নোটিশটিতে স্বাক্ষর করেছেন সাথিয়ামঙ্গলাম আদালতের অধস্তন জজ ডি সেলভাম।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ৪ ফেব্রুয়ারি ৪৭ বছরের ওই নারী এর জবাব দিয়েছেন। তিনি এতে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন এবং শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে তার বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।
দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়া ওই নারী জানান, প্রায় নয় বছর আগে তিনি নিয়োগ পেয়েছেন। তার দুটি কন্যা রয়েছে। তাকে তার অসুস্থ স্বামীটিরও দেখভাল করতে হয়।
তামিলনাড়ুতে আদালতের বিচারকদের হাতে দলিত সম্প্রদায়ের লোকজনের নিপীড়নের এই অভিযোগ নতুন নয়। এর আগে ২০১২ সালে এক অফিস সহকারীকে এক বিচারকের বাসা ঝাড়ু ও ধোয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। একই বছর মাছের তরকারি রান্না করতে না পারায় আরেক বিচারক তার অফিস সহকারীকে বরখাস্ত করেছিলেন।