mashrafiস্বপ্নের ফাইনালে বাংলাদেশ। টানা তিন জয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে দারুণ খুশি মাশরাফি বিন মুর্তজা। তবে সেই উচ্ছ্বাসে ভেসে যেতে রাজি নন বাংলাদেশের অধিনায়ক। আসল ম্যাচটাই যে বাকি! সতীর্থদের চাপ না নিয়ে ফাইনালে নিজেদের খেলাটা খেলার পরামর্শ দিয়েছেন দেশসেরা এই পেসার।
এশিয়া কাপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হওয়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে আসেন টাইগারদের দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। সেখানে তিনি জানান, নিজেদের স্বাভাবিক থেকেই বিশ্বের এক নম্বর দলের বিপক্ষে মুখোমুখি হতে হবে। ফাইনালে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী লাল-সবুজের দলপতি।
সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি জানান, কোনো সন্দেহ নেই ভারত টি-টোয়েন্টির এক নম্বর দল। তারা শুধু টি-টোয়েন্টি ফরমেটেই নয়, টেস্ট এবং ওয়ানডেতেও ভালো মানের দল। তাদের ব্যাটিং অর্ডার বেশ শক্তিশালী। টপঅর্ডারের ছয়জন ব্যাটসম্যান রয়েছে যারা যেকোনো জায়গা থেকে ম্যাচ বের করে নিতে পারেন। তবে, আমাদের বোলাররা ছেড়ে কথা বলবে না। ফাইনালে তাদের ব্যাটসম্যানদের আটকানোর কোনো বিকল্প নেই।
নিজেদের পাওয়ার প্লে’র ছয় ওভারকে গুরুত্ব দিয়ে ম্যাশ জানান, ভারতের বিপক্ষে আমরা প্রথম ছয় ওভার ভালো বল করতে চাই। এটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। টি-টোয়েন্টিতে প্রথম ছয় ওভার আর শেষের দিকের ওভারগুলো ম্যাচের ড্যামেজ সাইড। আমরা সেদিকে নিজেদের ফোকাস ধরে রাখার চেষ্টা করবো।
মাশরাফি আরও জানান, ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে নামার আগে আমাদের ভালো সুযোগ তৈরি হয়েছে। এমন সুযোগ সবসময় আসেনা। আমরা নিজেদের সেরাটা দিয়েই সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাই।
দর্শক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের ম্যাচে দর্শক সবসময়ই পাশে থাকেন। তাদের জন্যই আমাদের এতদূর আসা। তাদের অনুপ্রেরণাতেই আমরা ভালো খেলে থাকি। তারা আমাদের ম্যাচের বড় একটি অংশ। এ ম্যাচেও আমি দর্শকদের পাশে থাকার আহবান জানাই। আর নিজেদের সামনে এত বড় সুযোগকে কাজে লাগানোর জন্য দর্শকদের সঙ্গে আমাদেরও কিছুটা আবেগ রয়েছে। তবে, আবেগ নিয়ন্ত্রণ করে আমাদের খেলতে হবে। আবেগ থাকাটাই স্বাভাবিক। এটা নিয়ন্ত্রণ করাটাও বেশ কঠিন। তবে, ভারতের মতো ভালো দলের বিপক্ষে কঠিন কাজটিই আমাদের করতে হবে। আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করে আর স্বাভাবিক থেকেই
খেলতে চাই।
মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে রোববার (০৬ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ভারত।