iPhone 5 Apple’sআইফোন কেনার জন্য ১৮ দিনের মেয়েশিশুকে বেঁচে দিয়েছিল এক বাবা। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর ওই শিশুর বাবা দুয়ানকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে স্থানীয় এক আদালত। এ ঘটনায় শাস্তি দেয়া হয়েছে শিশুটির মাকেও।
সম্প্রতি দক্ষিণ পূর্ব চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের টংগ্যাংন এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ব্রিটিশ পত্রিকা ‘দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ জানিয়েছে।
স্থানীয় ‘পিপলস ডেইলি অনলাইন’র বরাত দিয়ে ‘দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ জানায়, অল্পবয়সে বিয়ে করেছিল দুয়ান নামের ওই চীনা তরুণ। বিয়ের কিছুদিন না যেতেই গর্ভবতী হয় তার স্ত্রী জিয়াও মেই। তখন তাদের দুজনেরই বয়স মাত্র ১৯। যথারীতি শিশুটির জন্ম হয়। এরপরই তাকে বেঁচে দেয়ার পরিকল্পনা করে দুয়ান ও তার স্ত্রী।  চীনা সামাজিক মাধ্যম কিউকিউ’তে এক ক্রেতাও জুটে যায় দুয়ানের। ওই ব্যক্তির হাতেই নিজের ১৮ দিনের মেয়েকে তুলে দেয় সে। বিনিময়ে আড়াই হাজার ইউরো পকেটস্থ করে দুয়ান। এ দিয়ে একটি আইফোন ও মোটরবাইক কেনার খায়েশ ছিল ওই তরুণের। কিন্তু ঘটনা জানাজানি হওয়ায় তার সে পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে।
এ সম্পর্কে তার স্ত্রী জিয়াও মেই সাংবাদিকদের জানায়, তার রোজগারেই সংসার চলত। তার স্বামী দুয়ান কোনো কাজ করত না। দিনের বেশিরভাগ সময় সে ইন্টারনেট ক্যাফেতে সময় কাটাত। ওই তরুণী আরো জানায়, অত অল্প বয়সে বাচ্চা নেয়ার ইচ্ছা ছিল না তাদের। সন্তানের জন্মদানকে একটি দুর্ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করে জিয়াও আরো জানায়, ওই শিশুটিকে দেখভাল করার মত সামর্থ্য না থাকায় তারা একে বেঁচে দিয়েছে।
এদিকে ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর পালিয়ে গিয়েছিল শিশুর মা মেই। পরে পুলিশ তাকে খুঁজে বের করে। ধরা পড়ার পর সে পুলিশকে আরো জানায়, শিশু বিক্রি যে আপরাধ এটি তার জানা ছিল না। কেননা সে এর আগে নিজের শহরে বহু মানুষকে শিশু কেনাবেঁচা করতে দেখেছে।
শিশু বিক্রির অপরাধে তার আড়াই বছর এবং তার স্বামী দুয়ানের তিন বছরের জেল হয়েছে। যদিও বিক্রিত শিশুটি এখনো ওই ক্রেতার বোনের কাছে রয়েছে। তবে পুলিশের কাছে ধরা দিয়েছে শিশুটির মূল ক্রেতা।