Ittadi, Hnaifবিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে আজ রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর একযোগে প্রচারিত হবে লালবাগ কেল্লার অভ্যন্তরে ধারণকৃত ‘ইত্যাদি’র একটি বিশেষ পর্ব। কয়েক হাজার দর্শক নিয়ে ২০০৯ সালের জানুয়ারিতে পুরান ঢাকার দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত অসম্পূর্ণ মোগল প্রাসাদ দুর্গ লালবাগ কেল্লায় অনুষ্ঠানটি ধারণ করা হয়। বিষয় বৈচিত্র্যে ভরপুর ‘ইত্যাদি’র এই পর্বে রয়েছে কিছু মানবিক ও শিক্ষামূলক প্রতিবেদন। এবারের অনুষ্ঠানের বিভিন্ন প্রতিবেদন ধারণ করতে ‘ইত্যাদি’র টিম গিয়েছিল টেকনাফ, তেঁতুলিয়া, রাজশাহী, নওগাঁ, নোয়াখালীসহ অনেক স্থানে। এতে বৃক্ষপ্রেমী ১০৬ বছরের বৃদ্ধ গহের আলীর ওপর রয়েছে একটি মানবিক প্রতিবেদন। যিনি স্বীকৃতি ও প্রচারের লোভে নয়, নিঃস্বার্থভাবে মানুষের কল্যাণে কাজ করেন। এছাড়া চুলের হাট এবং তরকারি কাটা নিয়ে রয়েছে দুটি ব্যতিক্রমী রিপোর্টিং। এবারের ইত্যাদিতে দুজন প্রেমিকের ভালোবাসার স্মৃতি নিয়ে একটি গানে গানে গল্প রয়েছে। এই গল্পের চিত্রায়নে অংশ নিয়েছেন এই প্রজন্মের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনয়শিল্পী ইমন ও বিন্দু। আর গানটি পরিবেশন করেছেন সুমন। বিয়ের পাত্রী নির্বাচন নিয়ে রয়েছে আর একটি বিষয়ভিত্তিক গান। এতে অভিনয় করেছেন প্রাণ রায়, সমু চৌধুরী, সাজু খাদেম, আরফান ও আব্দুল আজিজ। তাছাড়া আমন্ত্রিত দর্শকপর্ব সাজানো হয়েছিল ঢাকার ৪০০ বছর পূর্তি উৎসবকে কেন্দ্র করে। দর্শকপর্বের নির্বাচিত ৬ জন দর্শকের মধ্যে ৪ জন নির্বাচন করতে ‘ইত্যাদি’র টিম গিয়েছিল টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া এবং বাকি দু’জনকে নির্বাচন করা হয় লালবাগ কেল্লায় আমন্ত্রিত দর্শকদের মধ্য থেকে। বিজয়ী নির্বাচনের জন্য ঢাকার ৪০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ঢাকাকে নিয়ে রচিত একটি তথ্যবহুল গান পরিবেশন করা হয়। গানটি লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, পরিবেশন করেছেন ফোকসম্রাজ্ঞী ও ‘ইত্যাদি’র আবিষ্কার শিল্পী মমতাজ। সঙ্গে ছিলেন আরিফ দেওয়ান, রুস্তম দেওয়ানসহ আরো অনেকেই। এবারের ‘ইত্যাদি’তে একটি ব্যতিক্রমধর্মী টকশোতে মুখোমুখি দেখা যাবে মামা-ভাগ্নে ও নানা-নাতিকে। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক অসংগতি ও সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে রয়েছে বেশ কয়েকটি বিদ্রূপাত্মক নাট্যাংশ। ‘ইত্যাদি’ রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। ‘ইত্যাদি’ স্পন্সর করেছে কেয়া কস্মেটিকস্ লিমিটেড।