Mogbazar fly overউদ্বোধনের প্রথম দিনই তীব্র যানজট শুরু হয়েছে বহুমুখী মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারে। এর আগে সকালে তেজগাঁও-সাতরাস্তা থেকে হলি ফ্যামিলি পর্যন্ত দুই কিলোমিটার অংশ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। বুধবার অফিসার্স ক্লাবের অনুষ্ঠানে ফ্লাইওভারের এ অংশের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের বেশ কিছুক্ষণ ফ্লাইওভার দিয়ে যেতে না দেয়া হলেও দুপুরের দিকে যানবাহন চলাচল শুরু করে।
দুপুর আড়াইটার দিকে মগবাজার থেকে সাতরাস্তা যাওয়ার পাশটিতে গাড়ির সংখ্যা কম ছিল। সাতরাস্তা থেকে ফ্লাইওভারে ওঠার রাস্তা থেকে মগবাজার ফ্লাইওভারের শেষ পর্যন্ত ছিল গাড়ির আধিক্য। প্রাইভেট গাড়ি থেকে শুরু করে গণপরিবহন বাসগুলো ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে যাওয়া শুরু করেছে। যানজট কমানোর জন্য ফ্লাইওভার উদ্বোধন করা হলেও সত্যিকার চিত্র হয় ভিন্ন।
অবশ্য কেউ কেউ বলছেন, প্রথম দিনতো অনেকেই সখ করেও দেখতে এসেছেন তাই যানজট একটু বেশিই।
চার লেনের এ ফ্লাইওভারের বাংলামোটর থেকে মৌচাক হয়ে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস, রামপুরা থেকে মৌচাক-মালিবাগ হয়ে শান্তিনগর অংশের নির্মাণ কাজ শেষ হবে ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে।
উদ্বোধনের পর পরই ফ্লাইওভারের এ অংশ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। এ অংশ উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গী ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ঢাকা উত্তর-দক্ষিণের দুই মেয়র আনিসুল হক ও সাঈদ খোকন, এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, মন্ত্রণালয়ের সচিব, এলজিইডি প্রধান প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক।
ফ্লাইওভারের আশপাশে উপস্থিত উৎসুক জনতা এসময় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানায়। উদ্বোধনের আগে ফ্লাইওভারটি ব্যানার ফেস্টুন দিয়ে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়।