westindis woman crieckআগের দিন পারেনি ছেলেরা। বৃহস্পতিবার পারল না মেয়েরাও। ছেলেদের মতো টি২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে নিউজিল্যান্ডের মেয়েরা। মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে নিউজিল্যান্ডকে ৬ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মেয়েরা।
টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৪৩ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে ৮ উইকেটে ১৩৭ রানে থেকে যায় নিউজিল্যান্ডের ইনিংস। টি২০ বিশ্বকাপে গত চার আসরে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড তিনবার ও নিউজিল্যান্ড দুইবার ফাইনালে উঠেছিল। এর মধ্যে তিনবার  অস্ট্রেলিয়া ও একবার শিরোপা জেতে ইংল্যান্ড। এই তিন দলের বাইরে এবারই প্রথম ওয়েস্ট ইন্ডিজ জায়গা করে নিল ফাইনালে। আগামী তিন এপ্রিল ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
১৪৪ রানের জয়ের টার্গেটে খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। তবে মিডল অর্ডারে কয়েকটি জুটি দাঁড়িয়ে গেলেও শেষের দিকে ব্যাটসম্যানরা তেমন জ্বলে উঠতে পারেনি। ফলে খুব কাছাকাছি গিয়েও নিউজিল্যান্ডকে হারতে হয় মাত্র ছয় রানে। নিউজিল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩০ বলে ৩৮ রান করেন ম্যাকগ্লাশান। ২৯ বলে ২৪ রান করেন স্যাটারওয়েট।
এছাড়া ডিভাইন ২২, ব্যাটেস ১২, মার্টিন অপরাজিত ১১ রান করেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন টেইলর। কনেল, ফ্লেচার ও কুইন্টাইন নেন একটি করে উইকেট। ৪৮ বলে ৬১ রান করার সুবাদে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্রিটনি কুপার।
এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের। মাত্র ১৮ রানেই হেলি ম্যাথুসের (১৬) উইকেটটি হারিয়ে ফেলে তারা। দ্বিতীয় উইকেটে ব্রিটনি কুপারের সঙ্গে ৬০ রানের পার্টনারশিপ গড়েন স্টিফানি টেলর। ব্যক্তিগত ২৫ রানের মাথায় টেলর আউট হলেও ফিফটি তুলে নিয়ে ক্রিজ ছাড়েন ব্রিটনি। বিদায়ের আগে ৪৮ বলে পাঁচটি চার ও দুটি ছক্কায় করেন ৬১ রান। ডটিনের ব্যাট থেকে আসে ২০ রান। মেরিসা অপরাজিত ছিলেন ১৫ রানে।
নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সেরা বোলার সোফি ডিভাইন। ৪ ওভারে ২২ রান খরচায় ঝুলিতে জমা করেছেন ৪ উইকেট। মোরনা নেইলসেন দখলে নেন একটি উইকেট।