smartphone pasportতাড়াহুড়ো করে প্রস্তুত হয়ে বিমানবন্দরে গিয়ে একদিন হয়তো হঠাৎ খেয়াল করলেন, ভুলে পাসপোর্টটাই ফেলে এসেছেন ঘরে। কী হবে এখন? সময়-স্বল্পতার কারণে ফিরে যাওয়াও হয়তো সম্ভব না। যদি আপনার সঙ্গে স্মার্টফোন থাকে তবে তখন আর এ নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে হবে না। সাম্প্রতিক এক গবেষণা এমন সম্ভাবনার কথাই বলছে। আধুনিক পাসপোর্টে ইতিমধ্যে ইলেকট্রনিক চিপ রয়েছে, যা পাসপোর্টে দেওয়া মূল মালিকের ছবির সঙ্গে বহনকারীর মুখাবয়ব মিলিয়ে দেখে।
বিশ্বের সবচেয়ে বড় পাসপোর্ট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ডি লা রুয়ে ব্রিটিশ ব্যাংক নোটও তৈরি করে। প্রতিষ্ঠানটি এমন এক প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে, বলা যায় যা পাসপোর্টকে ব্যবহারকারীর মুঠোফোনের ভেতর ঢুকিয়ে দেবে! স্মার্টফোনটাই ভার্চ্যুয়াল পাসপোর্ট হিসেবে কাজ করবে, ফলে কাগজের পাসপোর্ট দেখানোর প্রয়োজন হবে না। কাগজবিহীন এই পাসপোর্ট মোবাইল বোর্ডিং কার্ডের মতোই কাজ করবে। এটি স্মার্টফোনে সংরক্ষণ করে রাখা যাবে এবং ভ্রমণকারী কোনো ধরনের কাগজ সঙ্গে না নিয়েই এয়ারপোর্টে ভ্রমণ করতে পারবেন।
তবে মুঠোফোন হারিয়ে গেলে ভ্রমণকারীর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়তে পারে। ডি লা রুয়ের একজন মুখপাত্র বলেছেন, ‘কাগজবিহীন পাসপোর্ট আমাদের সাম্প্রতিক সময়ের অনেক উদ্যোগের মধ্যে একটি। তবে এটি এখনো অগ্রগতির প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।’
নিরাপত্তা-বিষয়ক প্রতিষ্ঠান প্রুফপয়েন্টের ডেভিড জেভানস বলেছেন, ফোনে ডিজিটাল পাসপোর্টকে নিরাপদে সংরক্ষণের জন্য নতুন যন্ত্রাংশের প্রয়োজন হবে, যা ওই নির্দিষ্ট ফোন থেকে পাসপোর্টটিকে কপি করতে দেবে না। পাসপোর্টের পাঠকদের কাছে একে পৌঁছে দিতে হবে তারহীন প্রযুক্তির সাহায্যে, অন্যথায় পাসপোর্টের মালিকের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে।
সূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ