একসঙ্গে পাঁচ বোনের জন্ম


born 5 babyএকসঙ্গে জন্ম নিয়েছে পাঁচ বোন। আধা ঘণ্টার ব্যবধানে তারা সবাই ভূমিষ্ঠ হয়। ভারতের ছত্তিশগড় রাজ্যের আমবিকাপুরে একটি সরকারি হাসপাতালে ২৫ বছর বয়সি মা মনিতা শনিবার বেলা ১১টায় তার প্রথম কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এরপর ভূমিষ্ঠ হয় নবজাতকের আরো চার বোন।
ডেইলি মেইল অনলাইনের এক খবরে রোববার এ তথ্য জানানো হয়েছে।
একসঙ্গে পাঁচ কন্যা সন্তানের জন্মদানকারী মায়ের নাম মনিতা সিং। তার স্বামী মনিষ পাঁচ সন্তানের জনক হতে পেরে খুবই খুশি। তিনি বলেন, ঈশ্বরের প্রতি আমি খুবই কৃতজ্ঞ। একটি নয়, তিনি আমাদের একইসঙ্গে পাঁচটি সন্তান দিয়েছেন।
মজার বিষয় হচ্ছে, সন্তান প্রসবের আগ পর্যন্ত মিনতা ও মনিষ জানতেন না, তাদের ঘরে একইসঙ্গে পাঁচ অতিথি আসছে। কারণ গর্ভাবস্থায় কখনো আল্ট্রাসাউন্ড করাননি মনিতা।
শনিবার প্রসববেদনা ওঠার পর হাসপাতালে নেওয়া হয় ২৬ সপ্তাহের গর্ভবতী মনিতাকে। স্বাভাবিক প্রসবের কথা শুনে ভয় পাচ্ছিলেন মনিতা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যা হলো, তা রীতিমতো আশ্চর্যের।
দুই বছর আগে মনিতা তার প্রথম সন্তানের জন্ম দেন।  দুভার্গজনকভাবে জন্মের পরপরই তার ছেলে সন্তানটি মারা যায়। কিন্তু এবার মনিতা মহাখুশি। তার কোলজুড়ে থাকবে পাঁচ কন্যা।
মনিষ জানিয়েছেন, তার বিশ্বাস পাঁচ কন্যাই বেঁচে থাকবে এবং তাদের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য যা করা প্রয়োজন সবই করবেন। প্রথম সন্তান হারানোর বেদনা হয়তো ভুলতে পারবেন না, কিন্তু একসঙ্গে পাঁচ সন্তানের জন্ম যেন ঈশ্বরেরই উপহার।
মনিতার সন্তান প্রসবের সময় উপস্থিত ছিলেন ডা. তেকাম। তিনি জানান, শিশুগুলোর ওজন দেড় কেজির মতো। তারা এখনো শঙ্কামুক্ত নয়। কারণ গর্ভে তারা মাত্র ২৬ মাস থেকেছে, যেখানে ৩৬ সপ্তাহে স্বাভাবিক প্রসব ধরা হয়। তবে তারা চেষ্টা করে যাচ্ছেন, পাঁচ শিশুকেই সুস্থ রাখার। তিনি আরো জানান, আমার জীবনে এটিই প্রথম ঘটনা, যেখানে তার উপস্থিতিতে কোনো নারী পাঁচ সন্তানের জন্ম দিলেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s