Shahid_Afridiপাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শহিদ আফ্রিদি। রোববার (০৩ এপ্রিল) তিনি এ ঘোষণা দেন। টি-টােয়েন্টি বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। অবশেষে রোববার সিদ্ধান্তটি নিয়েই নিলেন তিনি। অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বুম বুম আফ্রিদি। অধিনায়কত্ব ছাড়লেও খেলা চালিয়ে যাবেন তিনি।
এশিয়া কাপের পর টি-টোয়েন্টি বিশকাপেও ব্যর্থ হয় পাকিস্তান দল। ফলে, দেশটির ক্রিকেট-নীতিনির্ধারকরা তদন্ত কমিটি (ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি) গঠন করে আফ্রিদিকে অধিনায়কের আসন থেকে সরিয়ে দিতে বোর্ডের কাছে সুপারিশ করে।
রোববার আফ্রিদি জানান, পাকিস্তানের ভক্ত এবং পুরো বিশ্বের সকল সমর্থকদের জানাতে চাই আমি আর জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের পদে থাকছি না। একান্ত নিজস্ব সিদ্ধান্ত থেকে আমি দলপতির পদ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছি।
আফ্রিদি আরও জানান, দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ দিয়ে আমাকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড গর্বিত করেছে। তিন ফরমেটে খেলার সুযোগ দেওয়ায় আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। অধিনায়কের পদ ছেড়ে দিলেও আমি টি-টোয়েন্টিতে নিজ দেশের হয়ে খেলা চালিয়ে যাব। এমনকি বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে আমি ক্রিকেটের এই ফরমেটে খেলে যাব।
দলের কোচ ওয়াকার ইউনুস ও ম্যানেজার ইন্তিখাব আলম তাদের রিপোর্টে আফ্রিদির প্রসঙ্গে অভিযোগ করার পর আফ্রিদি এমন ঘোষণা দেন। এশিয়া কাপ আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর দেশে ফিরে বোর্ডের কাছে দলের বাজে পারফর্ম আর বিপর্যয়ের রিপোর্ট পেশ করেন কোচ ওয়াকার ইউনিস। তার রিপোর্টের প্রেক্ষিতে ‘ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি’ বোর্ডের কাছে সুপারিশ করে আফ্রিদিকে অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার।
ওয়াকারের রিপোর্টে আরও ছিল দলের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির অহেতুক সব সিদ্ধান্তের কথা। কোচ জানান, এশিয়া কাপের আসর থেকেই ক্রিকেটে মন ছিল না আফ্রিদির। দলের অনুশীলন ও টিম মিটিংয়েও উপস্থিত থাকতেন না দলপতি।
এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় পাকিস্তান। এছাড়া হেরেছিল ভারতের বিপক্ষেও। এরপর বিশ্বকাপের সুপার টেনে বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলেও ভারত, নিউজিল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হেরেছিল সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
কমিটি থেকে আরও সুপারিশ করা হয় আফ্রিদিকে সরিয়ে অধিনায়কের দায়িত্ব উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদের হাতে তুলে দেওয়ার। পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) ফাইনালিস্ট কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সরফরাজ। তবে, বোর্ড থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা এখনও আসেনি।