mobile banking goal tableপ্রযুক্তিনির্ভর সেবা যত দ্রুত বাড়ে, তার সঙ্গে ঝুঁকিও বেড়ে যায়। তাই প্রযুক্তিনির্ভর সেবা প্রসারের ক্ষেত্রে ঝুঁকিটাকেও অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিতে হবে। ঝুঁকি মোকাবিলার মতো প্রশিক্ষিত জনবল গড়ে তুলতে হবে। এমনটাই মনে করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ।
আজ বুধবার মাহিন্দ্র কমভিভা ও প্রথম আলোর আয়োজনে ‘মোবাইল ব্যাংকিং : সম্ভাবনা ও নিরাপত্তা’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এ অভিমত তুলে ধরেন ইব্রাহিম খালেদ। তিনি বলেন, যেকোনো ধরনের আর্থিক লেনদেনে একধরনের ঝুঁকি থাকে। ঝুঁকির দায় যাতে গ্রাহকের ঘাড়ে না পড়ে, সে জন্য আর্থিক ঝুঁকিসংক্রান্ত বিষয়গুলো ব্যাংকের হাতে থাকা সমীচীন।
বাংলাদেশের মোবাইল ব্যাংকিং সেবার সম্ভাবনার বিষয়টি তুলে ধরে ইব্রাহিম খালেদ বলেন, মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় গ্রাহকেরা কোনো হয়রানি বা প্রতারণার শিকার হলে সুনির্দিষ্টভাবে যাতে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে অভিযোগ জানাতে পারে, সে জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশাপাশি টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসিতে গ্রাহক অভিযোগ কেন্দ্র চালু করা যেতে পারে। এ ছাড়া মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ঝুঁকি মোকাবিলায় সব ধরনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দেন তিনি।
গোলটেবিল আলোচনায় অংশ নিয়ে বিটিআরসির পরিচালক লে. কর্নেল (পিএসসি) মোহাম্মদ জুলফিকার বলেন, ব্যাংকিং–সেবার আওতার বাইরে থাকা দেশের বিপুল জনগোষ্ঠীকে এই সেবার আওতায় আনার লক্ষ্যে মোবাইল আর্থিক সেবা বা এমএফএস চালু করা হয়েছিল। এ সেবার খাতটির বয়স খুব বেশি দিন হয়নি। এরই মধ্যে আমরা প্রাথমিক পর্যায়টি ভালোভাবে অতিক্রম করেছি। এখন বিপুল সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে এ খাতটিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হলে দরকার একটি ‘সামগ্রিক নীতি’।
প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় অংশ নেন মোবাইল ফোন অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটবের মহাসচিব টি আই এম নুরুল কবির, বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম পরিচালক প্রজ্ঞা পারমিতা সাহা, বিকাশের করপোরেট অ্যান্ড এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান মেজর জেনারেল (অব.) শেখ মো. মনিরুল ইসলাম, মাহিন্দ্র কমভিভার কান্ট্রি ম্যানেজার রিয়াদ হাসনাইন, ডাচ–বাংলা ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল বিভাগের প্রধান আবুল কাশেম খান, দ্য সিটি ব্যাংকের চিফ ইনফরমেশন অফিসার কাজী আজিজুর রহমান, সিটিও (চিফ টেকনোলজি অফিসার) ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তপন কান্তি সরকার, শিওর ক্যাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) শাহাদত উল্লাহ খান, গ্রামীণফোনের ফাইন্যান্স সার্ভিসেস বিভাগের সিনিয়র স্পেশালিস্ট রাশেদা সুলতানা ও এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের নীতি বিশ্লেষক ইশতিয়াক হুসেইন।