real+madrid+05উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে রিয়াল প্রতিপক্ষ হিসেবে পায় জার্মানির ক্লাব ভলফসবুর্গকে। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ভলফসবুর্গ অবাক করে দেয় চ্যাম্পিয়নস লিগের দশ-দশবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে।
মঙ্গলবার রাতে রোনালদোর নৈপুণ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবধান অর্থাৎ ৩-০ গোলে জয় তুলে নেয় জিনেদিন জিদানের দল। দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলে জিতে টানা ষষ্ঠবারের মতো ইউরোপ সেরার লড়াইয়ের শেষ চারে উঠলো মাদ্রিদের দলটি। প্রথম পর্বে ঘরের মাঠে তারা ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে দেয় রেকর্ড ১০ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে। সেমিফাইনালে যেতে হলে ফিরতি লেগে ঘরের মাঠে জার্মানির ক্লাবটির বিপক্ষে জিততে হবে ৩-০ গোলে।
কাজটি অসম্ভব না হলেও বেশ কঠিন ছিল। কিন্তু সেই কঠিন কাজটি সহজ হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের প্রাণভোমরা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ম্যাজিকে।
মঙ্গলবার রাতে ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাজিক দেখান রোনালদো। আর তার ম্যাজিকে মন্ত্রমুগ্ধ হয় ৭৭ হাজার দর্শক। ভলফসবুর্গের বিপক্ষে একাই তিন গোল করে রিয়াল মাদ্রিদকে তোলেন কাঙ্ক্ষিত সেমিফাইনালে। ৩-২ ব্যবধানের জয়ে বিদায় করে দেন ভলফসবুর্গকে।
ঘরের মাঠে ম্যাচের ১৫ মিনিটেই এগিয়ে যায় রিয়াল। ভলফসবুর্গের ডি বক্সের বাইরে থেকে দানিয়েল কারবাহালের বাড়িয়ে দেওয়া বলে আলতো করে পা লাগিয়ে জাল কাঁপান রোনালদো (১-০)। আগের লেগে ২ গোলে এগিয়ে থাকা ভলফসবুর্গের সঙ্গে সমতা আনতে বেশি দেরি করেননি রোনালদো। ম্যাচের ১৭ মিনিটে টনি ক্রুসের বাড়িয়ে দেওয়া বলে মাথা লাগিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে (দুই লেগ মিলিয়ে ২-২ গোলের সমতা) বিশ্রামে যান রিয়ালের খেলোয়াড়রা।
বিরতির পর অবশ্য গোল পেতে বেশ দেরি হয় রিয়ালের। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে ফ্রি কিক পায় স্বাগতিকরা। ফ্রি কিক থেকে অবিশ্বাস্যভাবে গোল করেন রোনালদো। পর্তুগিজ তারকা শট নেওয়ার পর ডি বক্সের মধ্যে লাফিয়ে ওঠেন ভলফসবুর্গের খেলোয়াড়রা। তাদের শরীরের ফাঁক গলে বল আশ্রয় নেয় জালে (৩-০)। এই গোল উল্লাসে মাতোয়ারা করে তোলে রিয়াল সমর্থকদের।
এই গোলটি যে সোনার চেয়েও দামি। এই গোলে যেমন রোনালদোর হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয়েছে। তেমনি নিশ্চিত হয়েছে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালও। এ নিয়ে টানা ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে উঠল মাদ্রিদিস্তারা।
এদিকে প্যারিস সেইন্ট জামেই-এর বিপক্ষে দ্বিতীয় লেগে ১-০ ব্যবধানে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানে জয় তুলে নিয়ে ক্লাবটির ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে উঠেছে স্কাই ব্লুজরা। ৭৬ মিনিটে দলের হয়ে গোলটি করেন কেভিন ডি ব্রুনি।
রোনালদো গোলের ভিডিও :