This+12-year-old+was+Australia's+PMনিজেকে অস্ট্রেলিয়ার পঞ্চম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা করে দিয়েছে দেশটির সপ্তম বর্ষ পড়ুয়া একজন শিক্ষার্থী। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন, তবে ব্রিসবেন-এর অধিবাসী ১২ বছর বয়স্ক শিশু অর্লি ফেনেলন কোনো রাজনৈতিক পালাবদল বা সংঘাতের ফলাফল হিসেবে প্রধানমন্ত্রী পদে অভিষিক্ত হয়নি। বরং সে জনপ্রিয় এনসাইক্লোপিডিয়াভিত্তিক ওয়েবসাইট উইকিপিডিয়ায় অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রীদের নামের তালিকায় নিজের নাম যোগ করে দিয়েছে। আর এ বিষয়ে প্রাথমিকভাবে পদক্ষেপ নেওয়া তো দূরের কথা, এ ঘটনা টানা দুই দিন ধরে পুরোপুরিভাবে উইকিপিডিয়া এবং অস্ট্রেলীয় সরকারের চোখ এড়িয়ে যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।
অর্লি বলে, “আমি আর আমার বন্ধুরা আমেরিকার রাজনৈতিক অবস্থা নিয়ে কথা বলছিলাম, আর তখনই ‘প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অর্লি’ এই ধারণাটি আমাদের মাথায় আসে। আমি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করি এবং এরপরই উইকিপিডিয়া পেইজে ওই পরিবর্তন করি।”
এরপর অপ্রত্যাশিতভাবে উইকিপিডিয়া এই পরিবর্তন মুছে ফেলতে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় পুরো ব্যাপারটি ঠাট্টার বিষয় হয়ে পড়ে।
“বিষয়টি এমন একটি পর্যায়ে চলে গিয়েছিলো যে আমি ভেবেই বসেছিলাম যে (অস্ট্রেলীয় রাজনীতি সম্পর্কে) কেউ একটি বই লিখবে এবং তাতে আমার নাম থাকবে।”
প্রধানমন্ত্রী পদের ‘অভিজ্ঞতা’ সম্পর্কে অর্লি ঠাট্টার ছলে মন্তব্য করে, “আমি যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলাম তখন আসলে কিছুই ঘটেনি। পরিস্থিতি যথেষ্ট শান্ত ছিলো।”
অর্লি ভবিষ্যতে একজন ইন্টারনেট প্র্যাংকস্টার হতে চায়। তবে প্রধানমন্ত্রীত্ব পেয়ে গেলে সে রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে রাণীকে সরিয়ে দিয়ে প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চায় বলে জানায় বিবিসি।