aguera man City.JPGইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে অসাধারণ এক কীর্তি সার্জিও আগুয়েরো। মঙ্গলবার রাতে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের বিপক্ষে একবার লক্ষ্যভেদ করে লিগটিতে শততম গোলের মাইলফলক স্পর্শ করলেন ম্যানচেস্টার সিটির প্রাণভোমরা। এখানেই শেষ নয়, প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে এটি দ্বিতীয় দ্রুততম গোলের সেঞ্চুরির রেকর্ড।
এই নজির গড়তে আগুয়েরোর খেলেছেন ১৪৭ ম্যাচ। এর আগে ১৯৯৫-৯৬ মৌসুমে ১২৪ ম্যাচ খেলে শততম গোলের দেখা পেয়েছিলেন অ্যালেন শেয়ারার। যা প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে দ্রুততম গোলের সেঞ্চুরি করার কীর্তি।
দুর্ভাগ্যের বিষয়, আগুয়েরোর সেঞ্চুরির রাতে হোঁচট খেয়েছে ম্যানসিটি। খুইয়েছে মূল্যবান দুটি পয়েন্ট। প্রতিপক্ষ নিউক্যাসেলের সঙ্গে ১-১ গোলের ব্যবধানে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির দল।
সের্হিও আগুয়েরোর মাইলফলকে পৌঁছানো গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর নিউক্যাসলের মাঠ থেকে ১-১ গোলে ড্র করে ফিরেছে ম্যানচেস্টার সিটি।
মঙ্গলবার রাতে ম্যাচের চতুর্দশ মিনিটে আলেক্সান্দার কোলারভের ফ্রি-কিকে হেড করে গোল করার সময় অফসাইড ছিলেন আগুয়েরো।
১৪৭তম ম্যাচে শততম গোলটি করলেন আগুয়েরো, যা ইপিএলে দ্বিতীয় দ্রুততম। ১২৪টি ম্যাচ খেলে এই মাইলফলকে পৌঁছেছিলেন অ্যালেন শিয়েরার।
৩১তম মিনিটে ভার্নন আনিটার বাঁকানো নীচু শটে সমতা ফেরায় অবনমন অঞ্চলে থাকা নিউক্যাসল।
হেসুস নাভাস আর কেভিন ডি ব্রুইনের গোলের প্রচেষ্ঠা দুর্দান্তভাবে ঠেকিয়ে মূল্যবান একটি পয়েন্ট এনে দেন নিউক্যাসল গোলরক্ষক কার্ল ড্যারলো।
এমন ফলেও লিগ টেবিলে ম্যানসিটির অবস্থানের পরিবর্তন হয়নি। ৩৪ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান তৃতীয়। সমসংখ্যক ম্যাচে ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি তালিকার শীর্ষে রয়েছে লেস্টার সিটি। ৬৮ পয়েন্ট সংগ্রাহক টটেনহাম হটস্পারসের দখলে রয়েছে দ্বিতীয় স্থান।