india national musiam Fireভারতের রাজধানী দিল্লির বিখ্যাত প্রাকৃতিক জাদুঘরে সোমবার মধ্যরাতে আগুন ধরে যায়। ওই অগ্নিকাণ্ডে দুর্লভ প্রজাতির বহু উদ্ভিদ ও প্রাণীর নমুনা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। নষ্ট হয়ে গেছে বহু মূল্যবান নথি। ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবেশমন্ত্রীর বরাত দিয়ে মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।
স্থানীয় সময় সোমবার (২৫ এপ্রিল) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ওই জাদুঘরের ছয়তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এরপরই আগুন ছড়িয়ে পড়লে আগুন নেভাতে কাজ শুরু করেন উদ্ধার কর্মীরা। প্রায় চার ঘণ্টা চেষ্টা চালানোর পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
দিল্লির ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব নেচারাল হিস্ট্রি জাদুঘরের সাত তলায়  স্থানীয় সময় সোমবার (২৫ এপ্রিল) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ওই জাদুঘরের ছয়তলায় আগুনের সূত্রপাত। এরপর তা দ্রুত অন্যান্য তলায় ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায় দমকলের ৩৫টি গাড়ি।
টানা চার ঘণ্টা চেষ্টা চালানোর পর ভারতের নয়া দিল্লিতে অবস্থিত ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্ট্রি জাদুঘরে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আগুন নেভাতে গিয়ে সাত দমকল কর্মী আসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। এ ঘটনায় আহত দমকলকর্মীদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
তাৎক্ষণিকভাবে দিল্লির কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত ৩৮ বছরের পুরনো ওই জাদুঘরে ওই অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি।
পরিবেশ মন্ত্রী প্রকাশ জাভেদকর বলেন, আগুনে ঠিক কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা এখনও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নিরুপণ করতে পারেননি। তবে পুরানো সংগ্রহগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। জাদুঘরের বাইরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটা প্রকৃত ক্ষতি। এই ক্ষতি অর্থে পরিমাপ করা যাবে না। এখানে খুবই পুরানো কিছু উদ্ভিদ ও প্রাণীর নমুনা ছিল। এদের কিছু ছিল খুবই দুর্লভ।’ তিনি অবিলম্বে দেশের ৩৪টি জাদুঘরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখারও নির্দেশ দিয়েছেন।
১৯৭৮ সালে এ জাদুঘর চালু হয়। এখানে দুর্লভ প্রজাতির প্রজাপতি, ব্যাং, সাপ, টিকটিকি, বাঘ ও চিতাবাঘের নমুনা সংরক্ষিত ছিল।