smart phone ultrasonoএবার স্মার্টফোনে আলট্রাসনোগ্রাম। আমেরিকার বিজ্ঞানীরা আলট্রাসনোগ্রামের এই ডিভাইসটি তৈরি করছেন। ডিভাইসটি বাজারে এনেছে ফিলিপস। মোবিইউএস (MobiUS) নামের নতুন এই ডিভাইসটি স্মার্টফোনের সাথে সংযুক্ত করলেই তা দিয়ে আলট্রাসনোগ্রাম করা যাবে।
স্মার্টফোনের সাথে আলট্রাসনোগ্রাম যুক্ত হওয়ার বিষয়টি তৃতীয় বিশ্বের চিকিৎসাক্ষেত্রে বিপ্লব ঘটাবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। স্ক্যানার প্লাগটি ফোনের সাথে সংযুক্ত করলেই সাথে সাথে পর্দায় স্ক্যান করা ছবিটি ভেসে উঠবে। দামের দিক থেকেও ব্যাটারিচালিত এই ডিভাইস অনেক সাশ্রয়ী। যেখানে একটি উন্নত আলট্রাসনোগ্রাম মেশিনের দাম ৬০ হাজার পাউন্ড, সেখানে এই ডিভাইসটির দাম ৭ হাজার পাউন্ড।
সনোগ্রামের মাধ্যমে রোগ নির্ণয় সহজতর করবে। নতুন ডিভাইসের মাধ্যমে গর্ভকালীন শিশুর অবস্থা, হার্ট (হৃদপিণ্ড), লাঙ (ফুসফুস), গলব্লাডার (পিত্তথলি), লিভার (যকৃত) এবং ব্রেস্ট (স্তন) এর আলট্রাসনোগ্রাম সম্ভব হবে। যা হোক, আলট্রাসনোগ্রাম স্ক্যানার সাধারণত হাসপাতাল কিংবা ক্লিনিকে থাকে, যার জন্য রোগীকে সেখানে যেতে হয়। কিন্তু এই ডিভাইসটিকে খুব সহজেই প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিয়ে যাওয়া যাবে এবং সেখানেই প্রয়োজন হলে স্ক্যান করা যাবে। স্ক্যান করা ছবিটিকে সহজেই মোবাইল নেটওয়ার্ক কিংবা ওয়াইফাই-এর মাধ্যমে প্রেরণ করা যাবে।
স্ক্যানারের সঙ্গে নিজস্ব ট্যাবলেট এবং স্মার্টফোনের জন্য উইন্ডোজ সরবরাহ করছে প্রস্তুতকারীরা। তবে তারা অ্যাপল এবং এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম-এ এটিকে কীভাবে চালু করা যায়, তা নিয়ে কাজ করছে। উল্লেখ্য আলট্রাসনোগ্রাম একটি নিরাপদ রোগ নির্ণয় পদ্ধতি। পৃথিবীর প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষ এখনো এই পদ্ধতির সুযোগ গ্রহণ করতে পারেনি, না পারার অন্যতম কারণ দারিদ্র্য। নতুন এই ডিভাইসটি দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে আলট্রাসাউন্ড ডায়াগনস্টিকের সুবিধা পৌঁছে দেবে বলে মনে করছেন উদ্যোক্তারা।