CR7.jpgলুইস ফিগোকে ছাড়িয়ে পর্তুগালের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। রেকর্ড গড়া ম্যাচে হতাশাও সঙ্গী হয়েছে সিআর-সেভেনের। তার পেনাল্টি মিসেই যে ইউরোতে অস্ট্রিয়ার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে পর্তুগাল। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে শনিবার রাতে ফিগোকে ছাড়িয়ে পর্তুগালের হয়ে রেকর্ড ১২৮তম ম্যাচ খেলতে নামেন রোনালদো। রেকর্ডের রাতে গোল করে দলের জয়ের নায়কও হতে পারতেন রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড। রোনালদো গোলের সুযোগ পেয়েছেন, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি। দূর থেকে শট নিয়েছেন, হেড করেছেন, কিন্তু অস্ট্রিয়ার গোলরক্ষক যেন এদিন চীনের প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন!
চলমান ইউরোপয়িান চ্যাম্পিয়নশিপে আবারো পয়েন্ট খোয়ালো ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে পর্তুগিজরা। রিয়াল মাদ্রিদের সেরা তারকা রোনালদোর পেনাল্টি মিসের মাশুল দিতে হয় ২০০৪ আসরের রানার্সআপদের।
এই ড্র’তে শেষ ষোলোতে উঠা পর্তুগালের জন্য বেশ কঠিন হয়ে গেল। গ্রুপ ‘এফ’র পয়েন্ট টেবিলে দুই ম্যাচ শেষে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে হাঙ্গেরি। আইসল্যান্ড আর পর্তুগালের সমান দুই পয়েন্ট। আর এক পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে অস্ট্রিয়া।
জয় না পেলেও এ ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেছেন রোনালদো। পর্তুগালের কিংবদন্তি লুইস ফিগোকে এ ম্যাচে মাঠে নামার পর ছাড়িয়ে গেছেন সিআর সেভেন। ফিগো ১২৭ ম্যাচ খেলে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছিলেন। অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ১২৮তম ম্যাচ খেলে পর্তুগিজদের জার্সি গায়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড নিজের করে রাখলেন রোনালদো।
ম্যাচের ৭৯ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি শট থেকে গোল করতে পারেননি রোনালদো। তার নেওয়া শটটি গোল পোস্টে লেগে ফিরে আসে। ৮৫ মিনিটের মাথায় অস্ট্রিয়ার জালে বল জড়ান রোনালদো। তবে, অফসাইডের কারণে সেটি বাতিল করে দেন রেফারি।
প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধেও কোনো গোল আদায় করতে না পারা পর্তুগালকে তাই এক পযেন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিপক্ষেও ১-১ গোলে ড্র করেছিল রোনালদো বাহিনী।