messi-higuan.jpgদীর্ঘ ২৩ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর লক্ষ্যে সেমি ফাইনালে উঠেছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে ভেনেজুয়েলাকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের এক নম্বর দেশ হিসেবে থাকা আর্জেন্টিনা।
যুক্তরাষ্ট্রে চলমান শতবর্ষী কোপা আমেরিকায় দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন লিওনেল মেসি। দলকে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি। রোববার সকালে (বাংলাদেশ সময়) কোয়ার্টার ফাইনালের খেলায় ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ফের জ্বলে উঠলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। চেনালেন নিজের জাত। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচটিতে অসাধারণ একটি গোল করলেন তিনি। অন্য দুটি গোলে রাখলেন প্রত্যক্ষ অবদান।
এ ছাড়া একই ম্যাচে ছন্দে ফিরেছেন দলের আরেক তারকা গঞ্জালো হিগুয়েন। নাপোলির হয়ে স্বপ্নের একটি মৌসুম কাটানো এই স্ট্রাইকার আদায় করে নিয়েছেন জোড়া গোল। তাই মেসি-হিগুয়েন নৈপুণ্যে ভেনেজুয়েলাকে ৪-১ গোলের ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে কোপার সেমিফাইনালের খেলা নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা।
কোপার শেষ চারের খেলায় আর্জেন্টিনার  প্রতিপক্ষ স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র। আগামী ২২ জুন বুধবার সকাল ৭টায় ম্যাচটি গড়াবে টেক্সাসের রিলায়েন্ট স্টেডিয়ামে। এখন বলার অপক্ষো রাখে না যে মার্কিন বাধা পেরুতে পারলেই টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে খেলবে মেসির নেতৃত্বাধীন আর্জেন্টিনা। আর তাতে দীর্ঘ ২৩ বছর ধরে বড় কোনো শিরোপা জয়ের আক্ষেপ ঘোচানোর পথ মসৃণ হবে তাদের।
ফক্সবরোর জিলেট স্টেডিয়ামে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ম্যাচের শুরু থেকেই মেসিকে খেলিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ জোরার্ডো মার্টিনো। দলের প্রাণভোমরা আলো ছড়িয়েছেন সূচনালগ্ন থেকেই। খেলার ৮ মিনিটে মাথায় ডানপ্রান্ত থেকে তিনি বল বাড়িয়ে দেন হিগুয়েনের দিকে। আর হিগুয়েনও সেটি প্রতিপক্ষ দলের জালে জড়াতে ভুল করেননি। নাপোলির স্ট্রাইকারের গোলে লিড নেয় আর্জেন্টিনা (১-০)।
ম্যাচের ২৮ মিনিটের মাথায় ভুলের খেসারত দিয়েছে ভেনেজুয়েলা। তাদের দুই ডিফেন্ডারের ভুল পাস থেকে বল নিজের দখলে নেন হিগুয়েন। ভেনেজুয়েলার গোলরক্ষক ড্যানিয়েল হার্নান্দেজ সান্তোসকে বোকা বানিয়ে ব্যক্তিগত ও দলের পক্ষে দ্বিতীয় গোলটি আদায় করে নেন আর্জেন্টিনার তারকা এই স্ট্রাইকার (২-০)।
৪২তম মিনিটে আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো বল বিপদমুক্ত করতে গিয়ে মার্তিনেসের পায়ে ঝাঁপ দিয়ে ফেলে দিলে পেনাল্টির নির্দেশ দেন রেফারি। কিন্তু দারুণ সুযোগ পেয়েও গোল শোধ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন লুইস মানুয়েল। ভেনেজুয়েলার এই মিডফিল্ডারের দুর্বল শটটি সহজেই রুখে দিয়েছেন রোমেরো।
৬০তম মিনিটে মেসি বল পাস দেন ফ্যাবিয়ান গাইতানকে। এরপর গাইতান সেটি মেসির উদ্দেশ্যে বাড়িয়ে দেন। ওয়ান-টু-ওয়ান পাসে ভেনেজুয়েলার জাল কাঁপান মেসি (৩-০)। ৭০ মিনিটের মাথায় ভেনেজুয়েলার হয়ে একটি গোল শোধ দেন রনদোন। দারুণ দক্ষতায় আর্জেন্টিনার গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি (৩-১)। এর ঠিক এক মিনিট পর ভেনেজুয়েলার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন এরিক লামেলা। গোলটির উৎসমুখে ছিলেন লিওনেল মেসি।

বাতিস্তুতাকে ছুঁয়ে মেসির সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড
এদিকে কোপা আমেরিকার শতবার্ষী আসরে একের পর এক কীর্তি গড়েই যাচ্ছেন লিওনেল মেসি। দেশের জার্সি গায়ে ব্যর্থ এমন সমালোচনার শিকার বার্সেলোনা তারকা এবার নিজের জাত ভালোই চেনাচ্ছেন। আর সর্বশেষ ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে একটি গোল করে আর্জেন্টিনা সর্বোচ্চ গোলদাতা গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতাকে ছুঁয়ে ফেললেন মেসি। বর্তমানে সাবেক ও বর্তমান এ তারকাদের জাতীয় দলের হয়ে গোলের সংখ্যা ৫৪। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে চিলির বিপক্ষে ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরেই সময় কাটাতে হয়েছিলো মেসিকে। তবে পানামার বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে নেমেই করে ফেললেন হ্যাটট্রিক। তৃতীয় ম্যাচে বলিভিয়ার বিপক্ষে ছিলেন গোলশূন্য। কিন্তু শেষ আটের লড়াইয়ে ভেনেজুয়েলার ৪-১ ব্যবধানে জয়ের ম্যাচে করেছেন  একটি গোল। আর এই গোলই রেকর্ডের পাতায় মেসির নাম লেখায়।
এবারের টুর্নামেন্ট শুরুর আগে জাতীয় দলের সর্বোচ্চ গোলদাতা কিংবদন্তি বাতিস্তুতা থেকে চার গোলে পিছিয়ে ছিলেন মেসি। আর সেমিফাইনালের আগেই এখন সেই কীর্তিতে নাম লেখালেন তিনি। হয়ত শেষ চারের ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেই নতুন রেকর্ড গড়ে ফেলতে পারেন ব্যালন ডি’অর জয়ী এ তারকা।
চলতি আসরে মেসি যে শুধু গোলই করেছেন তা নয়। সতীর্থদের গোল করানোতেও তার দুর্দান্ত ভূমিকা ছিলো। এছাড়া মেসি এখন পর্যন্ত যৌথভাবে কোপার সর্বোচ্চ গোলদাতাও। মেসি চার গোলের পাশাপাশি সমান গোল পেয়েছেন ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চিলির এডুয়ার্ডো ভারগাস। মেক্সিকোর বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে চিলির ৭-০ গোলে জয়ের ম্যাচে মিডফিল্ডার ভারগাস একাই করেন চার গোল।
আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ গোলদাতা
নাম                  ম্যাচ       গোল
গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা    ৭৮        ৫৪
লিওনেল মেসি          ১১১       ৫৪
হার্নান ক্রেসপো         ৬৪        ৩৫
দিয়েগো ম্যারাডোনা    ৯১         ৩৪
সার্জিও আগুয়েরো      ৭৬         ৩৩