দিল্লির পাঁচতারা হাসপাতালের কাণ্ড


dillhi 5star hospital kando.JPGভালো চিকিৎসা পাওয়ার আশাতেই বেশি টাকা খরচ করে মানুষ নামিদামি হাসপাতালে যায়। কিন্তু পাঁচতারা হাসপাতাল যদি এমন কাণ্ড করে তাহলে আর কার ওপর আস্থা রাখা যায়? দিল্লির এমন একটি নামি হাসাপাতালে গিয়ে উল্টো বিপদে পড়েছেন রবি রাই (২৪) নামে এক তরুণ।
পড়ে গিয়ে ডান পায়ের গোড়ালিতে মারাত্মক চোট পান রবি। চিকিৎসকের পরামর্শে দিল্লির শালিমার বাগের নামি একটি হাসপাতালে ভর্তি হোন। অপারেশনের জন্য মেডিক্যাল ইনস্যুরেন্সের অর্ধেকেরও বেশি টাকা জমা দেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু, অপারেশন থিয়েটারে গিয়ে যা ঘটলো তাতে টাকাটাতো জলে গেলই এখন পঙ্গু হওয়ার জোগার তার। অর্থোপেডিক সার্জেনের ভুলে ডান পায়ে নয়, তার অস্ত্রোপচার করা হয় বাঁ পায়ের গোড়ালির হাড়ে! স্ক্রুগুলি লাগিয়ে দেয়া হয়েছে ভালো পায়ে।
অপারেশন করার পরও ভুল ধরতে পারেননি সার্জেন। জ্ঞান ফেরার পর রবি বুঝতে পারেন ব্যাপারটা।
তবে এমন ঘটনার পরও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ‘কিছুই হয়নি’ ভাব। হাসপাতালের কিছু কর্মীর ওপর দোষ চাপিয়ে ঘটনাটি চাপা দেয়ার চেষ্টা করা হয় বলে দাবি রবির পরিবারের।
অবশ্য ঘটনাটা নিয়ে বিভ্রান্ত অন্য চিকিৎসকরা। রোগীর পায়ের এক্স-রে করে কোথায় কোথায় স্ক্রু লাগানো হবে, তা চিহ্ণিত করা হয়। এ ক্ষেত্রে ওই চিকিৎসক অপারেশন করার সময় কোনও ক্ষত দেখতে না পেয়েও, কীভাবে অপারশন করলেন, সেই প্রশ্ন উঠছে।
আপাতত রবিকে অন্য একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s