Bodies+are+seen+on+the+ground.JPGফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলীয় নিস শহরে বাস্তিল দিবসের উৎসবে জড়ো হওয়া জনতার ওপর দ্রুত গতিতে ট্রাক চালিয়ে দেওয়ার ঘটনায় শিশুসহ অন্তত ৮৪ জন নিহত হয়েছেন; এ ঘটনাকে সন্ত্রাসী হামলা বলছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনাকে একটি সন্ত্রাসী হামলা বলে ধারণা করছে কর্তৃপক্ষ। বাস্তিল দুর্গ পতনের দিবস হিসাবে ফ্রান্সে জাতীয়ভাবে দিনটি পালন করা হয়, এ উপলক্ষেই শহরটিতে নানা অনুষ্ঠান চলছিল। খবর বিবিসি।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের নিস শহরে যখন বাস্তিল দিবস উপলক্ষে একটি আতশবাজি প্রদর্শনী চলছিল, তখন বহু মানুষের একটি ভিড়ের উপর একটি লরি উঠে যায়। ফলে ঘটনাস্থলেই অনেক মানুষ মারা গেছে বলে জানা যাচ্ছে।
টুইটারের কয়েকটি ছবিতে দেখা যায় যে, অনেক মানুষ রাস্তার উপর পড়ে রয়েছে।
এ ঘটনাকে একটি সন্ত্রাসী হামলা বলে বর্ণনা করছে শহরটির কর্তৃপক্ষ। তারা বাসিন্দাদের ঘরের ভেতর থাকার জন্যেও অনুরোধ করেছে।
নিস শহরের প্রসিকিউটরদের উদ্ধৃত করে ফরাসি গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, সেখানে অন্তত ৮৪ জন নিহত হয়েছেন এবং শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।
নিস শহরের মেয়র ক্রিশ্চিয়ান এস্ট্রোসি নিশ্চিত করে বলেছেন, ‘একজন লরিচালক কয়েক ডজন মানুষ হত্যা করেছে।’
ফ্রান্সের গণমাধ্যমের কাছে প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজন দাবি করেন, সেখানে তারা গুলির শব্দও শুনতে পেয়েছেন। যদিও এ তথ্য যাচাই করা সম্ভব হয়নি।
শহরটির একজন বাসিন্দা বলছেন, আমরা কয়েকটি গুলির শব্দও শুনতে পাই। প্রথমে আমরা ভেবেছিলাম যে, সেগুলো হয়তো আতশবাজির শব্দ। কিন্তু সবাইকে দৌড়ে পালাতে দেখে আমরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। পরে আমরা একটি হোটেলে আশ্রয় নেই।
সামাজিক মাধ্যমে এ ঘটনার বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশ হয়েছে। তাতে দেখা যায়, অসংখ্য মানুষ আতঙ্কিত মুখে শহরের রাস্তা ধরে ছুটে পালাচ্ছে।
ঘাতক লরি চালককেও পুলিশ গুলি করে হত্যা করেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন। তবে তার পরিচয় এখনও জানা যায়নি।
এ ঘটনার পর সঙ্কটকালীন জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ।
গত বছর প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় বহু হতাহতের ঘটনার পর থেকেই দেশটিতে জরুরি অবস্থা রয়েছে, তার মধ্যেই এ ঘটনা ঘটলো।