pope-argentina.jpgইসলাম নয় বরং দুর্বল বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনাই বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে পড়া জঙ্গিবাদের জন্য দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। পোল্যান্ডের কারাকো বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, ইসলামকে সহিংসতার সঙ্গে গুলিয়ে ফেলা ঠিক নয়। এটি একটি জঙ্গি ধর্ম কিংবা ইসলাম জঙ্গিবাদের উত্থানের জন্য দায়ী, এমন কথা বলা উচিত নয়। কোনো ধর্মই সহিংসতাকে একচ্ছত্রভাবে সমর্থন করে না।
সম্প্রতি ফ্রান্সে ইসলামিক স্টেট নামধারী সংগঠন কর্তৃক একটি চার্চের ফাদার নিহত হওয়ার প্রসঙ্গে পোপ এসব মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, জঙ্গি হামলার সঙ্গে ধর্মের কোন সম্পর্ক নেই। বর্তমান অর্থনীতি ‘অর্থই ঈশ্বর’ মেনে চলায় এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে। মানুষ বিশ্বাসের স্থান হারিয়ে ফেলছে। ফলে বেশ দ্রুত সে হতাশ হয়ে যাচ্ছে।
আন্তঃধর্মিও সংলাপে ইসলাম সম্পর্কে হওয়া আলোচনাকে প্রতিপাদ্য করে তিনি বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম হিসেবেই তার অনুসারীদের কাছে পরিচিত। তারা কখনই সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে না।
তিনি আরো বলেন, ‘যদি ইসলামের হিংস্রতা নিয়ে আমাকে কথা বলতে বলা হয়, তাহলে ক্যাথলিকদের হিংস্রতা নিয়েও আমাকে কথা বলতে হবে। সকল ক্যাথলিকরা যেমন হিংস্র নয়, তেমনি সকল মুসলমানও হিংস্র নয়।’ তিনি ইসলামিক স্টেটকে ‘ছোট্ট একটি মৌলবাদী গোষ্ঠী’ আখ্যা দিয়ে বলেন, তারা মূল ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের প্রতিনিধিত্ব করছে না।
তিনি আরো বলেন, ‘সকল ধর্মীয় গোষ্ঠীর মধ্যেই একটি ছোট মৌলবাদী গোষ্ঠী থাকে। ক্যাথলিকদের মধ্যেও আছে। ক্যাথলিকরা হয়ত সরাসরি হত্যা করছে না। কিন্তু মনে রাখা উচিত আপনি ছুরি দিয়ে যেমন মানুষ হত্যা করতে পারেন, তেমনি কথা দিয়েও মানুষ হত্যা করতে পারেন।’

pope-argentina.jpg

Advertisements