রোনালদোর সেঞ্চুরি, রিয়ালের জয়


ronaldo0320170413110821প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপিয়ান ক্লাব প্রতিযোগিতায় গোলের সেঞ্চুরি করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডের ইতিহাস গড়ার রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে বায়ার্ন মিউনিখকে ২-১ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।
চার গোল পিছিয়ে থেকে মৌসুম শুরু করা রোনালদো অবশেষে সাত মাস পর সেঞ্চুরির দেখা পেলেন।বুধবার রাতে আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় শুরুতে পিছিয়ে পড়েছিল কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ। ২৫ মিনিটে বায়ার্নকে এগিয়ে দেন আরতুরো ভিদাল। থিয়াগো আলকানতারার কর্নারে লাফিয়ে উঠে দারুণ এক হেড নেন চিলিয়ান এই মিডফিল্ডার। বল ফেরানোর কোনো সুযোগই পাননি রিয়াল গোলরক্ষক কেইলর নাভাস।
অথচ এর সাত মিনিট আগে এগিয়ে যেতে পারত রিয়ালই। জার্মান মিডফিল্ডার টনি ক্রুসের ক্রস থেকে হেড করেছিলেন করিম বেনজেমা। কিন্তু বায়ার্ন গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যারের আঙুলের আলতো ছোঁয়া নিয়ে বল লাগে ক্রসবারে। তা না হলে জালেই ঢুকে যেত। পরে আরো বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করেছেন চোট কাটিয়ে ফেরা জার্মান গোলরক্ষক। ৪২ মিনিটেই যেমন গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন রোনালদো। সার্জিও রামোসের বাড়ানো বলটা পেয়েছিলেন ডি-বক্সের একটু বাইরে। সেখান থেকেই পর্তুগিজ তারকার বুলেট গতির শট। নয়্যার ডানদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন রোনালদোর প্রায় নিশ্চিত গোল।
বিরতির আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পেয়েছিল বায়ার্ন। ফ্রাংক রিবেরির শট রিয়ালের দানি কারভাহালের বুকে লাগলেও হ্যান্ডবল ধরে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। কিন্তু বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মেরে সুযোগ হাতছাড়া করেন প্রথম গোলদাতা ভিদাল।
বিরতির পর দুই মিনিটের মধ্যেই রিয়ালকে সমতায় ফেরান রোনালদো। কারভাহালের ক্রসে ডান পায়ের শটে বল জালে পাঠান চারবারের ফিফা বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়। ৬৫৯ মিনিট পর চ্যাম্পিয়নস লিগে গোল পেলেন রোনালদো। সবশেষ গোলটি করেছিলেন সেই সেপ্টেম্বরে।
৫৬ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত রিয়াল। কিন্তু গ্যারেথ বেলের হেড ঠেকিয়ে আবারও বায়ার্নের ত্রাতা নয়্যার। একটু পরেই দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন স্বাগতিক ডিফেন্ডার জাভি মার্টিনেজ। এই সুযোগে রিয়ালও আক্রমণের পশরা সাজিয়ে বসে।
৭৫ মিনিটে অবশ্য আরেকবার রোনালদোর জোরালো শট ডান হাত বাড়িয়ে ঠেকান নয়্যার। তবে দুই মিনিট পর রোনালদোকে আর রুখতে পারেননি। মার্কো আসেনসিওর ক্রসে পা বাড়িয়ে বুটের তলা দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে রিয়ালকে এগিয়ে দেন সিআর-সেভেন।
চ্যাম্পিয়নস লিগে এটি রোনালদোর ৯৭তম গোল। আর ইউরোপিয়ান ক্লাব প্রতিযোগিতায় শততম গোল। শেষ দিকে আরেকটি অ্যাওয়ে গোলের সুবিধা নিয়ে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ফিরতি লেগে নামতে পারত রিয়াল। কিন্তু রামোসের গোল অফসাইডের জন্য বাতিল হয়ে যাওয়ায় সেটি হয়নি।
এদিকে ৯৭ গোল নিয়ে উয়েফার ক্লাব প্রতিযোগিতায় রোনালদোর পেছনে রয়েছেন বার্সেলোনার সুপারস্টার লিওনেল মেসি। আর ৭৭ গোল করা রিয়াল মাদ্রিদের কিংবদন্তি ফুটবলার রাউল গঞ্জালেস আছেন তিনে।
শুধু চ্যাম্পিয়নস লিগ হিসেব করলেও মেসির চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন রোনালদো। পর্তুগিজ সুপারস্টারের গোল সংখ্যা ৯৭। আর মেসির ৯৪ গোল। ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় রোনালদো পেছনে ফেললেন মেসিকে। এবার দেখার বিষয় চ্যাম্পিয়নস লিগে কে আগে দেখা পান সেঞ্চুরির!

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s