Solomon-Mire zimঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে ৩১৬ রান করেও জিততে পারেনি শ্রীলঙ্কা। আজ শুক্রবার সফরকারী জিম্বাবুয়ে ৩১৭ রানের টার্গেট ছুঁয়ে ফেলে ৪৭.৪ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে। ১৪ বল হারে রেখে ৬ উইকেটের দারুণ এক জয় তুলে নেয় স্প্রিং বকরা।
শ্রীলঙ্কার মাটিতে এ পর্যন্ত ২৯৬টি ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিন্তু কোনো দল এর আগে তিন শতাধিক রান তাড়া করে জিততে পারেনি সেখানে। আজ গলে ৩১৭ রান তাড়া করে জয় পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। গড়েছে নতুন এক ইতিহাস। শ্রীলঙ্কার মাটিতে এই প্রথম কোনো দল তিন শতাধিক রান তাড়া করে জয় পেল।
এর আগে ২০০৯ সালে ডাম্বুলায় পাকিস্তানের ছুড়ে দেওয়া ২৮৮ রান তাড়া করে জিতেছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। সেটাই ছিল শ্রীলঙ্কার মাটিতে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড। আজ সেই রেকর্ড ভেঙে দিয়ে স্প্রিং বকরা ৩১৭ রান তাড়া করে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে। গড়েছে নতুন এক রেকর্ড।
সত্যিই অবিশ্বাস্য! জিম্বাবুয়েও এমন ব্যাটিং করতে পারে? না দেখলে বিশ্বাস করবে না কেউ। ঘরের মাঠে ৩১৬ রান করেও তাকে রক্ষা করতে পারলো না লঙ্কানরা। জিম্বাবুয়ের মত দল সেই রান টপকে গেলো ৪৭.৪ ওভারেই। মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে। জয়ের জন্য ৩১৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সলোমন মিরের অনবদ্য সেঞ্চুরির ওপর ভর করে ৬ উইকেটের ব্যবধানে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দেয় জিম্বাবুয়ে।
লঙ্কান বোলারদের তালিকা দেখলে কেউ বিশ্বাসই করতে চাইবে না জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা তাদের ৩১৬ রান টপকে গেছে। লাসিথ মালিঙ্গা, নুয়ান প্রদীপ, অ্যাসেলা গুনারত্নে, আকিলা ধনঞ্জয়া থেকে শুরু করে মোট ৭জন বোলার ব্যবহার করেছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ। তাতেও কাজ হলো না।
সলোমন মিরের ৯৬ বলে ১১২, শন উইলিয়ামসের ৬৯ বলে ৬৫, সিকান্দার রাজার ৫৬ বলে অপরাজিত ৬৭ এবং ম্যালকম ওয়ালারের ২৯ বলে ৪০ রানের ওপর ভর করেই এত বড় একটি স্কোর পাড়ি দিলো জিম্বাবুয়ে।
মাত্রই ক’দিন আগে নেদারল্যান্ডসের মত দলের কাছে হেরে শ্রীলঙ্কা এসেছে জিম্বাবুয়ে। তারাই কি না অবিশ্বাস্য ব্যাটিং করে আজ শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দিলো।
জয়ের জন্য ৩১৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে হারায় জিম্বাবুয়ে। উইকেট তুলে নেন মালিঙ্গা। তবে মালিঙ্গা আতঙ্ক খুব বেশি ভর করেনি জিম্বাবুয়ে শিবিরে।
১২ রানে মাসাকাদজা এবং ৪৬ রানের মাথায় ক্রেইগ আরভিন ফিরে গেলেও শন উইলিয়ামসের সঙ্গে ১৬১ রানের জুটি গড়ে তোলেন সলোমন মিরে। দলীয় ২০৭ রানের মাথায় ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর সলোমন আউট হন ব্যক্তিগত ১১২ রানে।
জয়ের আসল কাজটিই তিনি করে দিয়ে যান। এ সময় খেলা চলছিল ৩৩তম ওভারের। পরের কাজটুকু উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা এবং ম্যালকম ওয়ালার মিলে সেরে নেন। হাতে তখনও বাকি ছিল ১৪ বল।
এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে কুশল মেন্ডিসের ৮৬, উপুল থারাঙ্গার অপরাজিত ৭৯, গুনাথিলাকার ৬০ এবং অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের ৪৩ রানের ওপর ভর করে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩১৬ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s