ক্লাসিকো জিতে শিরোপা ঘরে তুললো বার্সা


barca ellপ্রাক মৌসুমের এল ক্লাসিকোতে মুখোমুখি হয়েছিল বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতোই মুখোমুখি হয়েছিল স্প্যানিশ দুই জায়ান্ট। আর সেই ম্যাচেই তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজ তুলে শেষ হাসি হেসেছে বার্সেলোনা। রিয়ালকে ৩-২ গোলে হারিয়ে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নস কাপের শিরোপা জিতেছে লিওনেল মেসিরা।
প্রাক মৌসুম হলেও শক্তিশালী দল নিয়ে খেলে বার্সেলোনা। মিয়ামির সান লাইফ স্টেডিয়ামে ছিলেন মেসি, সুয়ারেস ও নেইমার। তবে রিয়ালের দলে ছিলেন না ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। বিশ্রামে রয়েছেন টুর্নামেন্টের আগে থেকেই। এমন ম্যাচেই খেলার ৩ মিনিটে বার্সাকে এগিয়ে নেন মেসি। চার মিনিট পর আবারও গোল করে বার্সা। রাকিটিচের গোলে ব্যবধান দাঁড়ায় ২-০।
অবশ্য উৎসবের মাঝে চিন্তার ভাঁজটাও প্রকট হয়েছিল বার্সা শিবিরে! শুরুতেই ইনজুরিতে পড়ে গিয়েছিলেন নেইমার। পিএসজিতে তার দল বদল নিয়ে আলোচনা অনেক দিন ধরেই। এই অবস্থায় এমন ইনজুরি আলাদা শঙ্কা তৈরি করেছিল। কিন্তু বেশিক্ষণ বাইরে থাকতে হয়নি। প্রথম গোলের পরই খেলায় নামেন তিনি।
যদিও ২ গোলে এগিয়ে থাকা বার্সার ফুরফুরে মেজাজটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ১৪ ও ৩৬ মিনিটে দুটি গোল শোধ করে বার্সাকে আতঙ্কের মধ্যেই ফেলে দিয়েছিল রিয়াল। প্রথমটি করেন কোভাসিচ ও পরেরটি মার্কো আসেনসিও।
রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের বাকিটা ছিল দ্বিতীয়ার্ধে! ফের এগিয়ে গিয়ে জবাব দিয়ে দেয় বার্সা। জেরার্ড পিকের গোলে সব শঙ্কা দূর করে বার্সেলোনা। যদিও এই গোলটি বানিয়ে দিয়েছিলেন নেইমার। তার ফ্রি কিক থেকেই গোলটি করেন পিকে। এরপর আর ব্যবধানে হেরফের করতে পারেনি রিয়াল। যার ফল হলো শিরোপা দিয়েই মৌসুম শুরু করলেন বার্সার নতুন কোচ এরনেস্তো ভালভারদে।
বার্সার কাছে হেরে উদ্বিগ্ন নন জিদান : চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার কাছে হেরেও উদ্বিগ্ন নন জিনেদিন জিদান। রিয়াল মাদ্রিদ কোচের সব ভাবনা এখন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে উয়েফা সুপার কাপ নিয়ে। ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামিতে বার্সেলোনার কাছে ৩-২ গোলে হেরেছে রিয়াল। এই নিয়ে প্রস্তুতিমূলক এ টুর্নামেন্টে নিজেদের তিন ম্যাচের সবকটিতেই হারলো স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। এর আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে টাইব্রেকারে ও ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ৪-১ গোলে হেরেছিল লা লিগা ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ীরা।
তবে এই ব্যর্থতায় হতাশ হওয়ার কিছু দেখছেন না জিদান। তার নজর এখন আগামী সপ্তাহে হতে যাওয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে উয়েফা সুপার কাপ। ‘এই পরাজয়ে আমি চিন্তিত নই। এটা সবসময়ই কষ্টের, আমরা হারতে পছন্দ করি না। কিন্তু এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়। আমাদের উন্নতি করা দরকার এবং কিছু বিষয় পরিবর্তন করা দরকার।’
‘এটা প্রাক-মৌসুম। যেসব ফল পেয়েছি তা আমরা প্রত্যাশা করিনি। তবে তাতে কিছুই পাল্টাইনি।’
‘৮ অগাস্টের জন্য প্রস্তুত হওয়াটা এখন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। মাঠে আমি ভালো কিছু দেখেছি। আবার কিছু বিষয় আমার পছন্দ হয়নি। আমাদের ধৈর্য ধরতে হবে; কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং উয়েফা সুপার কাপের জন্য প্রস্তুত হতে হবে।’

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s