অদ্ভুত ঘড়ি


odvutr ghori, clockঅভিনব এবং উদ্ভট- দু ধরনের উদ্ভাবনের ক্ষেত্রেই জাপানের জুড়ি মেলা ভাড়। তবে সম্প্রতি জাপানি একটি প্রতিষ্ঠান এমন ধরনের দেয়াল ঘড়ি উদ্ভাবন করেছে, যা দেখে অনেকে মন্তব্য করার ভাষা হারিয়ে ফেলেছে। এ যেন অভিনবের মধ্যেই উদ্ভট।
ম্যাশঅ্যাবলের খবরে বলা হয়েছে, টোকিওভিত্তিক ডিজাইন স্টুডিও ‘উই প্লাস’ দেয়াল ঘড়ি হিসেবে নতুন যে ঘড়িটির ডিজাইন করেছে সেটি বাজারের অন্যসব অ্যানালগ ঘড়ির মতোই স্বাভাবিক সময় প্রদর্শন করে। তবে চমকপ্রদ ব্যাপার হচ্ছে, ঘড়িটিতে সেকেন্ড, মিনিট অথবা ঘণ্টার কাটার পরিবর্তে ব্যবহার করা হয়েছে মানুষের ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন প্রযুক্তি!
‘পেটিয়েন্স’ নামক এই ঘড়িটিতে থাকা মানুষের বাঁ চোখের মনির অবস্থান ঘণ্টা, ডান চোখের মনির অবস্থান মিনিট এবং মুখ অনবরত হাঁ করা ও বন্ধ করার বিষয়টি সেকেন্ড হিসেবে প্রদর্শিত হয়। তিন ধরনের মুখচ্ছবিতে তৈরি করা হয়েছে এই ঘড়ি- একজন বয়স্ক নারীর মুখচ্ছবি, একজন তরুণীর মুখচ্ছবি এবং একজন তরুণের মুখচ্ছবি। তবে অদ্ভুত এই ঘড়িটির দাম এবং কবে নাগাদ বাজারে পাওয়া যাবে, সে ব্যাপারে কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি উই প্লাস।

Advertisements
This entry was posted in Different, Since (বিজ্ঞান). Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s